রোজা রেখে টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজা যাবে?

166
টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজলে রোজা ভাঙে কি না তা নিয়ে মতভেদ রয়েছে আলেমদের মধ্যে।
টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজলে রোজা ভাঙে কি না তা নিয়ে মতভেদ রয়েছে আলেমদের মধ্যে।

রোজা রেখে টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজার বিষয়ে ইসলামে নির্দিষ্ট করে কিছু বলা নেই। টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজলে রোজা ভাঙে কি না তা নিয়ে মতভেদ রয়েছে আলেমদের মধ্যে। তাদের একদল মনে করেন, রোজা রেখে টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করা যায়। এতে রোজা ভঙ্গ হয় না।

আরেকদলের মতে, রোজা রেখে পেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করা মাকরুহ। উল্লেখ্য, মাকরুহ অর্থ এমন কোনো আমল যা পালন করার চেয়ে না করাই ভালো। অর্থাৎ যে কাজ করা জায়েজ, কিন্তু না করা উত্তম। মাকরুহ কাজ করলে শাস্তি পেতে হবে না, কিন্তু এ ধরনের কাজ এড়িয়ে যেতে বলেছে ইসলাম।

আলেমদের মতে, পেস্টের গন্ধ ও স্বাদ থাকে। যেহেতু টুথপেস্টে মিষ্টিজাতীয় স্বাদ থাকে সেহেতু তা দিয়ে দাঁত না মেজে মেসোয়াক করাই উত্তম। কারণ রোজা রেখে কোনো জিনিসের স্বাদ গ্রহণ করা মাকরুহ। কাজেই টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজলে রোজা মাকরুহ হয়ে যেতে পারে। শুধু তাই নয়, পেস্ট গলার ভেতরে প্রবেশ করলে রোজাই নষ্ট হয়ে যাবে।

এছাড়া ব্রাশ করলে দাতেঁর গোড়া দিয়ে রক্ত বের হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এসব কারণে ব্রাশ না করে মেসোয়াক করাই ভালো। মেসোয়াক করলে রোজার কোনো ক্ষতি হবে না। তবে মেসোয়াক করতে হবে রাতে ও সেহরীর সময় শেষ হওয়ার আগে। আর রোজা রেখে দিনের বেলায় টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজা পরিহার করতে হবে।