পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের ভয়াবহ আগুন নিয়ন্ত্রণে, বিকেলেই খুলবে ঢাকা-সিলেট রেল রুট (ভিডিও)

250

মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলায় চলন্ত অবস্থায় পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনে ভয়াবহ আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার, ১১ জুন দুপুর পৌনে ১টার দিকে লাগা সেই আগুন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ইতোমধ্যে নিভিয়ে ফেলেছেন।

শ্রীমঙ্গলে এই অগ্নি দুর্ঘটনার কারণে ঢাকা-সিলেট রুটে রেল যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। তবে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসায় বিকেল পাঁচটা নাগাদ রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হবে বলে জানানো হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি। হতাহতের খবরও পাওয়া যায়নি। এই ঘটনায় সাত সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

শনিবার, ১১ জুন দুপুরে ঢাকা থেকে সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনে আগুন লাগার এই ঘটনা ঘটে। ট্রেনের যে অংশে আগুনের সূত্রপাত হয় সেটিকে বলা হয় পাওয়ার কার। এখান থেকেই ট্রেনের এসি বগিতে বিদ্যুতের লাইন দেওয়া হয়।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ট্রেনের চারটি বগিতে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে।

ট্রেনের সতেরটি বগির মধ্যে চারটি বগিতে আগুন লেগেছে বলে জানা গেছে। পাঁচটি বগি অক্ষত রয়েছে। সেগুলো দুর্ঘনাস্থলেই আছে। ইঞ্জিনসহ আটটি বগি দুর্ঘনাস্থল থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। সেগুলো কুলাউড়া স্টেশনে নিরাপদে রেখে দেওয়া হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন শ্রীমঙ্গল রেল স্টেশনের মাস্টার ফরিদ আহমেদ।

ফরিদ আহমেদ জানিয়েছেন, আজ (শনিবার) আনুমানিক দুপুর সাড়ে ১২টায় পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি বগিতে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে দ্রুত সেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে পাশের বগিগুলোতে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, প্রথমে একটি বগিতে আগুন লাগে। পরে দ্রুত সেই আগুন পাশের বগিগুলোতে ছড়িয়ে পড়তে থাকে। তবে টেনের যাত্রীরা সবাই নিরাপদে নেমে যেতে পেরেছেন। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে দেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

তাৎক্ষণিকভাবে আগুনের সূত্রপাত কীভাবে হয়েছে তা জানা যায়নি। ক্ষয়ক্ষতি এবং হতাহতের সঠিক তথ্যও এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।