এবার পুরুষদের জন্য জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল (ভিডিও)

559

জন্মনিয়ন্ত্রণ অত্যন্ত জরুরি একটি বিষয় হলেও ধরেই নেওয়া হয় এর দায়িত্ব শুধুই নারীদের। বেশিরভাগ জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতিই নারীকেন্দ্রিক। জন্মনিয়ন্ত্রণের অন্যতম সহজ ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন পদ্ধতি হিসেবে সুপরিচিত জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল। যুগ যুগ ধরে এটি শুধু নারীরাই খেয়ে আসছেন। তবে এবার দিনবদলের পালা। পুরুষদের জন্যও জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল আবিষ্কার করে ফেলেছেন বিজ্ঞানীরা।

পুরুষদের জন্য যে পিল তৈরি করেছেন বিজ্ঞানীরা তার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া খুবই কম। ইতোমধ্যে ইঁদুরের ওপর পরীক্ষা চালিয়ে ৯৯ শতাংশ কার্যকারিতা পাওয়া গেছে। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ছয় মাসের মধ্যেই মানুষের ওপর নতুন আবিষ্কৃত এই জন্মনিয়ন্ত্রণ পিলের পরীক্ষা চালানো হবে। মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ সফল হলে জন্মনিয়ন্ত্রণের বিকল্প যেমন কনডমের ব্যবহার কিংবা ভ্যাসেকটমির মধ্য দিয়ে আর যেতে হবে না পুরুষদের।

পরীক্ষামূলকভাবে একটি পুরুষ ইঁদুরকে ২৮ দিন এই পিল খাওয়ানোর পর দেখা গেছে, ইঁদুরটির শুক্রাণুর সংখ্যা অবিশ্বাস্য হারে হ্রাস পেয়েছে কোনো রকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই। শুধু তাই নয়, পিল খাওয়ানো বন্ধের ৪২ দিন পর ইঁদুরটির শুক্রাণু আবার আগের মতোই উর্বর হয়ে উঠেছে।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, নতুন এই জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল পুরুষদের টেস্টোস্টেরন হরমোনের কোনোর রকম ক্ষতিসাধন করবে না। উল্লেখ্য, টেস্টোস্টেরন হলো পুরুষত্বের জন্য দায়ী প্রধান স্টেরয়েড হরমোন। পুরুষদের শুক্রাশয়ে এটি তৈরি হয়। প্রধান পুরুষ হরমোন হলো টেস্টোস্টেরন যা শুক্রাশয়ের লিডিগ কোষ থেকে উৎপন্ন হয়। টেস্টোস্টেরন প্রজনন অঙ্গ বৃদ্ধি করার পাশাপাশি শরীরের মাংসপেশী এবং লোম বৃদ্ধিতেও ভূমিকা রাখে।

বিজ্ঞানীরা আরও জানিয়েছেন, শরীরের ওজন বাড়া অথবা নৈরাশ্য সৃষ্টির মতো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হবে না এই পিল খেলে।