আল-আকসা মসজিদে আবার ইসরায়েলি হামলা (ভিডিও)

96

ফিলিস্তিনের অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে পবিত্র আল-আকসা মসজিদে আবার হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। এসময় পুলিশ ও ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

রোববার, ১৭ এপ্রিল এই হামলা চালানো হয়। এতে ২০ জন ফিলিস্তিনি আহত হন। এর ঠিক দুদিন আগেই গত শুক্রবার ভোরে মসজিদে অভিযান চালিয়ে শতাধিক ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করে ইসরায়েলি বাহিনী।

শুক্রবারের মতোই রোববারও ফজর নামাজের ওয়াক্তে মসজিদ প্রাঙ্গণে পুলিশ অভিযান শুরু করলে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এসময় বেশ কয়েকজন ফিলিস্তিনিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ইসরায়েলি বাহিনীর দাবি, এদিন ফিলিস্তিনিরা মসজিদে পাথর জমা করে রেখেছিল। তারা ইসরায়েলি ইহুদিদের মসজিদে প্রবেশ করতে বাধা দেওয়ার জন্য ব্যারিকেড দেয়। এ কারণে আল-আকসা মসজিদে প্রবেশ করে ইসরায়েলি পুলিশ।

ইসরায়েলি পুলিশ স্বীকার করেছে যে অধিকাংশ ফিলিস্তিনি মুসল্লিকে আল-আকসা মসজিদ থেকে বিতাড়িত করা হয়েছে। এই ঘটনায় ৯ জন ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে ইসরায়েলি পুলিশের পক্ষ থেকে।

এদিকে আল-আকসা মসজিদে দ্বিতীয় দফা ইসরায়েলি বাহিনীর আক্রমণে অন্তত ২০ জন আহত হন। তাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের হাসপাতালে নেওয়া হয়। গুরুতর আহতদের বেধড়ক মারধর করেছে পুলিশ। রাবার বুলেট দিয়েও আঘাত করা হয়েছে তাদের।

রেডক্রস সূত্রে জানা গেছে, আহত ফিলিস্তিনিদের চিকিৎসা প্রদানে বাধা দেওয়া হয় ইসরায়েলি বাহিনীর পক্ষ থেকে। রেডক্রস কর্মীদের মসজিদের ভেতর ঢুবতে দেওয়া হয়নি। পরে তারা বাব আল-আসবাতে গিয়ে আহত ফিলিস্তিনিদের সেবা করেছেন।

বরাবরের মতো এবারও রমজান মাস শুরুর পর থেকেই আল-আকসায় উত্তেজনা শুরু হয়। গত শুক্রবার ফজরের নামাজের সময় কয়েক হাজার মুসল্লি আল-আকসা মসজিদে যান। এসময় মুসল্লিদের ওপর হঠাৎ আক্রমণ চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। হামলায় আহত হন অন্তত ১৫৮ জন। এছাড়া গ্রেপ্তার করা হয় ৩০০ ফিলিস্তিনিকে।