এবার ইরাকে তুরস্কের সামরিক অভিযান (ভিডিও)

120

ইউক্রেনে রুশ সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকেই নিন্দার ঝড় বইছে বিশ্বজুড়ে। এর মধ্যেই ইরাকে সামরিক অভিযান শুরু করলো তুরস্ক।

তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ইরাকে কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) স্থাপনা লক্ষ্য করে সামরিক অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক। বড় ধরনের এই সামরিক অভিযানে যুদ্ধবিমান, হেলিকপ্টার, ড্রোন দিয়ে আকাশপথে হামলা চালানো হচ্ছে। পাশাপাশি তুরস্কের কমান্ডোরা স্থল অভিযানও চালাচ্ছে।

ইরাকে সামরিক অভিযানের একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, তুরস্কের বিমান বাহিনীর এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ঘাঁটি থেকে উড়ে যাচ্ছে। হেলিকপ্টার থেকে গোলাবর্ষণও করা হচ্ছে। ড্রোন দিয়ে বিভিন্ন স্থাপনায়ও বোমাবষর্ণ করতে দেখা গেছে ভিডিওতে।

তুরস্কের দাবি, অভিযান সফল হয়েছে। কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির বেশ কয়েকটি বাংকার, সুড়ঙ্গ ও অস্ত্রগুদাম ধ্বংস করা হয়েছে। উত্তর ইরাকে অবস্থিত কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির প্রধান কার্যালয় ধ্বংসের দাবিও করেছে তুরস্ক। অবশ্য এই সামরিক অভিযানে অংশ নেওয়া সেনার সংখ্যা এবং কী ধরনের অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে তা স্পষ্ট করে জানায়নি তুরস্ক।

কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টিকে (পিকেকে) প্লেগ অভিহিত করে তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, চার দশক ধরে চলতে থাকা এই প্লেগ (পিকেকে) থেকে জাতিকে রক্ষা করতে আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ। শেষ সন্ত্রাসীটির পতন না হওয়া পর্যন্ত আমাদের যুদ্ধ চলবে।

তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, তুরস্ক সন্ত্রাসীদের ছাড়া আর কাউকেই লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে না। সাধারণ মানুষের প্রাণহানি এড়াতে এবং ইরাকের ঐতিহাসিক স্থাপনা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেজন্য বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করছে তুরস্কের সশস্ত্র বাহিনী।