লকডাউনে মদের পার্টি, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর জরিমানা (ভিডিও)

93

লকডাউনের হোয়াইট হল ও ডাউনিং স্ট্রিটের পার্টিতে অংশ নেওয়ায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও অর্থমন্ত্রী চ্যান্সেলর রিশি সুনাককে জরিমানা করেছে লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ।

মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, করোনা মহামারির ভেতরে লকডাউন চলাকালে ডাউনিং স্ট্রিট ও হোয়াইট হলে দেশটির শীর্ষ রাজনীতিবিদদের ডেকে পার্টির আয়োজন করা হয়। পার্টিতে কোনো রকম স্বাস্থ্যবিধি না মেনে উপস্থিত হওয়ার কারণে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও অর্থমন্ত্রী চ্যান্সেলর রিশি সুনাককে জরিমানা করা হয়েছে।

ইতোমধ্যে জরিমানার নোটিশ পাঠানো হয়েছে যুক্তরাজ্যের প্রভাবশালী এই দুই রাজনীতিবিদকে।তাদের সাথে দেশটির শীর্ষস্থানীয় আরও ৫০ জন রাজনীতিবিদকেও জরিমানা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, লকডাউনের মধ্যেই পার্টি করার অভিযোগ উঠলে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ঘটনার সত্যতা উদঘাটনে তদন্ত নামে লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ। তদন্তে অভিযোগের সত্যতাও মেলে।

তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাষিত হওয়ার পর বরিস জনসনের সমালোচনা করে লেবার পার্টির শীর্ষ নেতা স্যার কেয়ার স্ট্র্যামার বলেন, বরিস জনসন ও রিশি সুনাক একাধিকবার আইন ভেঙেছেন। তাদের অবশ্যই পদত্যাগ করা উচিত। এটা এমন এক প্রশাসন যা ব্রিটেনের সঙ্কট নিয়ে মোটেও চিন্তিত না। প্রশাসন চালানোর যোগ্যতাই তাদের নেই। আরও অনেক বেশি ভালো প্রধানমন্ত্রী পাওয়ার যোগ্য ব্রিটেন।