১৩ সংখ্যাটি‌কে অশুভ বলা হয় কেন?

244
১৩ সংখ্যাটিকে সারাবিশ্বে অশুভ বলে মনে করা হয়।
১৩ সংখ্যাটিকে সারাবিশ্বে অশুভ বলে মনে করা হয়।

অতীতে উড়োজাহাজে ১৩ নম্বরের কোনো আসন রাখা হতো না। ইউরোপ বা আমেরিকায় বহুতল ভবনের লিফটে ১৩ নম্বরের কোনো সুইচ থাকে না। এমনকি আবাসিক হোটেলগুলোতে থাকে না ১৩ নম্বর রুম। আসলে টুকরো টুকরো অনেকগুলো ঘটনার প‌রিপ্রেক্ষিতেই ১৩ সংখ্যাটিকে সারাবিশ্বে অশুভ বলে মনে করা হয়। তাহলে জেনে নেওয়া যাক এমন সাত‌টি কারণ :

১। ইউরোপে পরিচালিত এক সমীক্ষা থেকে জানা গেছে, প্রতি মাসের ১৪ তারিখে প্রকাশিত সংবাদপত্রে তুলনামূলকভাবে বেশি অঘটনের খবর পাওয়া যায়। অর্থাৎ পত্রিকা প্রকাশের আগের দিন ১৩ তারিখে তুলনামূলকভাবে বেশি অঘটন ঘটে।

২। যিশুর অন্তিম ভোজ বা লাস্ট সাপারে ১৩ জন মানুষ ছিলেন। কথিত আছে, ১৩তম আসন গ্রহণের জন্য যিশু বা তাকে হত্যার ষড়যন্ত্রকারী জুডাস আগ্রহী ছিলেন। কেউ কেউ মনে করেন, লাস্ট সাপার গ্রহণ করা হয়েছিল নিসান মাসের ১৩ তারিখে। নিসান হলো ইহুদী ক্যালেন্ডারের একটি মাস। আবার কার কারও মতে, নিসান মাসের ১৩ তারিখেই যিশুকে ক্রুসসবিদ্ধ করা হয়েছিল।

৩। প্রচলিত আছে, কারও নামে যদি ১৩ অক্ষর থাকে তবে সে অভিশপ্ত হতে বাধ্য। অবিশ্বাস্য শোনালেও বেশ কয়েকজন কুখ্যাত খুনীর নামের বর্ণগুলো যোগ করলে তার যোগফল ১৩ হয়। যেমন- জ্যাক দ্য রিপার (Jack the Ripper), আলবার্ট ডি স্যালভো (Albert De Salvo), চার্লস ম্যানসন (Charles Manson), জেফরি দামের (Jeffrey Dahmer) ও থেডর বানডি (Theodore Bundy) নামগুলোর ভেতরে থাকা প্রতিটি বর্ণ যোগ করে দেখুন যোগফল ১৩ হয় কি না।

৪। কোনো মাসের ১৩ তারিখ যদি শুক্রবার হয় তাহলে ইউরোপের লোকজন রীতিমতো আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। কারণ অনেকের মতে, যিশুকে যেদিন ক্রুসবিদ্ধ করা হয় সেদিনও ছিল শুক্রবার। ইতিহাস থেকে দেখা যায়, ১৩ তারিখের শুক্রবারগুলোতে পৃথিবীতে নানা ধরনের বিপর্যয় ঘটেছে।

৫। স্ক্যান্ডেভিয়া ভাইকিং যোদ্ধাদের অপদেবতার নাম ছিল লোকি যার নম্বর ছিল ১৩। ভাগ্য গণনার জন্য বহু বছরের পুরোনো যে অশুভ ট্যারট কার্ড রয়েছে তার মোট ৭৮টি কার্ডের মধ্যে ১৩ নম্বর কার্ডটির মানে হলো মৃত্যু।

৬। অ্যাপোলো ১৩ ছিল চাঁদের ভূত্বকে অবতরণের উদ্দেশ্যে প্রেরিত তৃতীয় মনুষ্যবাহী মহাকাশ অভিযান। অ্যাপোলো ১৩ নভোযানে বিস্ফোরণ ঘটেছিল ১৯৭০ সালের এপ্রিল মাসের ১৩ তারিখ।

৭। গবেষকদের মতে, প্রাচীনকালে ফাঁসিকাষ্ঠে ওঠার সিঁড়িতে ১৩টি ধাপ থাকত।