১০০ নয়, অনন্তর ‘দিন: দ্য ডে’র বাজেট ছিল ৪ কোটি!

140
১০০ নয়, অনন্তর ‘দিন: দ্য ডে’র বাজেট ছিল ৪ কোটি!
১০০ নয়, অনন্তর ‘দিন: দ্য ডে’র বাজেট ছিল ৪ কোটি!

নায়ক-প্রযোজক অনন্ত জলিলের বিরুদ্ধে কিছুদিন আগে মামলা করার হুমকি দিয়েছিলেন ‘দিন দ্য ডে’ সিনেমার সহ-প্রযোজক ও পরিচালক মুর্তজা আতাশ জমজম। তার অভিযোগ, ‘দিন দ্য ডে’ সিনেমা নিয়ে যে চুক্তি হয়েছিল তার কিছুই রাখেননি অনন্ত জলিল। চুক্তিভঙ্গের অভিযোগে অনন্ত জলিলের বিরুদ্ধে ইরান ও বাংলাদেশের আদালতে মামলা করবেন বলে জানিয়েছিলেন ইরানি এই পরিচালক।

আর এবার তিনি নিজের ইনস্ট্রাগ্রামে ‘দিন দ্য ডে’র জন্য তার সঙ্গে অনন্তের করা চুক্তিপত্র প্রকাশ করেছেন।

বাংলাদেশ-ইরান যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত অনন্ত জলিলের আলোচিত সিনেমা ‘দিন: দ্য ডে’। এ সিনেমার বাজেট ১০০ কোটি টাকা বলে দাবি করে আসছেন অভিনেতা, প্রযোজক, পরিচালক অনন্ত জলিল।

তবে চুক্তিপত্রে সিনেমাটির বাজেট হিসেবে উল্লেখ আছে ৫ লাখ ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৪ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। যা ২০১৮ সালে হওয়া চুক্তিতে উল্লেখ রয়েছে।

সিনেমাটির বাজেটের চুক্তিপত্রটি নিজের ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেছেন ‘দিন: দ্য ডে’ সিনেমার ইরানি পরিচালক মুর্তজা অতাশ জমজম।

তিনি সোমবার (২২ আগস্ট) রাতে ইনস্টাগ্রামে বাংলায় তার দ্বিতীয় বিবৃতি এবং চুক্তিপত্র প্রকাশ করেন। চুক্তিপত্রে সিনেমার সর্বমোট বাজেটের অর্থ ৬টি কিস্তিতে জমজমকে পরিশোধের কথা অনন্ত জলিলের। কিন্তু অনন্তের বিরুদ্ধে বকেয়া অর্থ পরিশোধ না করা, চিত্রনাট্য ও শুটিং লোকেশন পরিবর্তনসহ একাধিক অভিযোগ তুলেছেন তিনি। 

বিষয়টি নিয়ে অনন্ত জলিল প্রশ্ন তুলে বলেন, সেই পরিচালক (মুর্তজা অতাশ জমজম) তো বাংলায় লেখতে পারে না। বাংলাদেশ থেকে কেউ তাকে পরিচালনা করছে। তারা চাচ্ছেন আমি যেন এই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে না থাকি। আর সিনেমা না বানাই, তাদের কথায় সরে যাই। আমাকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র হচ্ছে। আমি পরিচালকের সঙ্গে কথা বলে তারপর বিস্তারিত জানাব।

এদিকে চারদিন আগেই নির্মাতা জমজম ইনস্টাগ্রামে আরেক পোস্টে জানান, তিনি ও অনন্ত যে পরিকল্পনা করেছিলেন তা ভেঙেছেন অনন্ত। ইরান ও বাংলাদেশের আদালতে অনন্তর বিরুদ্ধে মামলা করবেন বলেও জানান এই নির্মাতা। 

উল্লেখ্য, ঈদুল আজহায় সারাদেশে মুক্তি পায় অনন্ত জলিল ও বর্ষা অভিনীত ‘দিন: দ্য ডে’ সিনেমাটি। এতে ইরান, আফগানিস্তান, তুরস্কসহ বিভিন্ন দেশের শিল্পীরা অভিনয় করেছেন। মুক্তির পর সিনেমাটি নিয়ে আলোচনা ও সমালোচনা দুইটিই হয়েছে।