হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র জিরকন যুক্ত হচ্ছে রুশ নৌবাহিনীতে : পুতিন

81
হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র জিরকন যুক্ত হচ্ছে রুশ নৌবাহিনীতে : পুতিন
হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র জিরকন যুক্ত হচ্ছে রুশ নৌবাহিনীতে : পুতিন

রাশিয়ার নৌবাহিনীতে আগামী কয়েক মাসের মধ্যে যুক্ত হচ্ছে জিরকন হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ ঘোষণা দিয়েছেন। জিরকন হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের একটি বড় বৈশিষ্ট্য হলো— এটি শব্দের চেয়ে ৫ থেকে ১০ গুণ বেশি গতিতে যায়। খবর ডেইলি মেইলের।

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র বিশ্বের অত্যাধুনিক অস্ত্রগুলোর অন্যতম। এক হাজার কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালানোর সক্ষমতা রয়েছে এই ক্ষেপণাস্ত্রের। সেন্ট পিটার্সবার্গে রাশিয়ার নৌবাহিনী দিবসে বক্তৃতাকালে এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রসঙ্গে কথা বলেন পুতিন। এ সময় তিনি রাশিয়াকে একটি সমুদ্রশক্তিতে পরিণত করার জন্য জার পিটার দ্য গ্রেটের প্রশংসা করেন।

এর আগে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জিরকন হাইপারসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রকে অপ্রতিদ্বন্দ্বী বলে অভিহিত করেছিলেন। এই ক্ষেপণাস্ত্র লক্ষ্যবস্তুকে একদম চুরমার করে দেয় বলে তিনি জানিয়েছিলেন। শুধু এই জিরকনই নয়, আরও কয়েক ধরনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে রাশিয়া।

২০১৮ সালে এ অস্ত্র প্রথম সামনে আনে পুতিন সরকার। ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর উচ্চ গতি ও ভূমির কাছ দিয়ে চলাচলের সক্ষমতার কারণে সেগুলো ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থার মাধ্যমে শনাক্ত ও ধ্বংস করা তুলনামূলক কঠিন।