হরিরামপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১, নিঃস্ব চার পরিবার

83

জ. ই. আকাশ, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) থেকে : মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে চারটি পরিবারের বসতঘর ও রান্নাঘর ভস্মীভূত হয়েছে। এতে ২০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে চারটি পরিবার নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। এছাড়াও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় স্ট্রোক করে ছাহেরা বেগম (৭০) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে বলেও জানা গেছে। উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের গোপীনাথপুর গ্রামে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ৬ আগস্ট শবিবার সকাল পৌনে ৭টার বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। রান্না ঘর থেকে আগুন লেগে মুহুর্তের মধ্যে শর্ট সার্কিট থেকে লাগা আগুন বৈদ্যুতিক তারের মাধ্যমে ছড়িয়ে যায় অন্যান্যদের ঘরে।

এ সময় শহিদুল ইসলাম, জামান মল্লিক, নূর ইসলাম ও রাবেয়া বেগমের বসতঘরসহ ৭টি ঘর আগুনে পুড়ে যায়। ঘরে থাকা ফসল, গৃহপালিত পশু, সব খাবার, আসবাবপত্র, কাপড়, নগদ অর্থসহ অন্যান্য জিনিসের ক্ষতি হয়।

এলাকাবাসী জানান, আগুন লাগার পরপরই জরুরী সেবা ৯৯৯ এর মাধ্যেমে ফায়ার সার্ভিসকে খবর পাঠানো হয়। প্রায় আধা ঘণ্টার মধ্যেই উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের টিম ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ভুক্তভোগীদের দাবি সবকিছু মিলিয়ে তাদের প্রায় ২০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বর্তমানে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সবাই খোলা আকাশের নিচে রয়েছে।

প্রতিবেশী হাবিব জানান, আজ সকালে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে আগুল লেগে ৪ পরিবারে ঘরগুলো পুরে পরিবারগুলো নিঃস্ব হয়ে গেছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক প্রতিবেশি জুলফেকার বিশ্বাস লিটন জানান, “অাগুনে পুড়ে ৪টি পরিবার সম্পুর্ণ নিঃস্ব হয়ে গেছে। এখন সরকারিভাবে সহযোগিতা না পেলে পরিবারগুলোর খুব সমস্যা হবে।”

এ বিষয়ে উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স লিডার মো. শফিকুল ইসলাম জানান, আমরা জরুরী সেবা ৯৯৯ এর মাধ্যেমে খবর পেয়েই তাৎখনিক ঘটনাস্থলে চলে যায় এবং ৯.০৩ মিনিটে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসে।”