হজম শক্তি বাড়ানোর ৫টি উপায়

106
হজম শক্তি বাড়ানোর ৫টি উপায়
হজম শক্তি বাড়ানোর ৫টি উপায়

আপনি একটি স্বাস্থ্যকর এবং সুষম খাদ্য খেতে পারেন, তবুও আপনার খাবার থেকে সমস্ত প্রয়োজনীয় পুষ্টি শোষণ না করা সম্ভব। শুধু সঠিক খাওয়ার অর্থ এই নয় যে আপনি শরীরের কাজ করার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত পুষ্টি পাচ্ছেন। পাচনতন্ত্র দ্বারা খাদ্যের শোষণ এতে সমানভাবে অপরিহার্য ভূমিকা পালন করে। শুধুমাত্র যখন আপনি

যে খাবার খান তা সঠিকভাবে হজম হয়, আপনার কোলন এটি থেকে পুষ্টি গ্রহণ করতে পারে এবং অঙ্গগুলির দ্বারা ব্যবহারের জন্য শরীরের বিভিন্ন অংশে সঞ্চালিত করতে পারে। অধিকন্তু, দুর্বল হজমের কারণে মাঝে মাঝে হজমের লক্ষণ যেমন পেট খারাপ, গ্যাস, অম্বল, বমি বমি ভাব, কোষ্ঠকাঠিন্য বা ডায়রিয়া হতে পারে।

গরম খাবার খান:

নিশ্চিত করুন যে খাবারটি আপনি যে সময়েই খাচ্ছেন না কেন তা গরম হয়। গরম এবং তাজা রান্না করা খাবার শরীর দ্বারা সহজে হজম হয়। ঠাণ্ডা খাবার বা কিছু সোজা রেফ্রিজারেটর থেকে বের করা আপনার হজম শক্তিকে ধীর করে দিতে পারে যা অগ্নি নামে পরিচিত। এটি শরীরে খাবার হজম হওয়ার হারকে কমিয়ে দিতে পারে, যা আপনাকে হজমের ব্যাধিগুলির প্রবণ করে তোলে।

যখন আপনি ক্ষুধার্ত খান:

আপনি যদি ক্ষুধার্ত না থাকেন তবে কখনই নিজেকে খাবার বা জলখাবার নিতে বাধ্য করবেন না। সপ্তাহে তিনটি বর্গ খাবার এবং দুটি স্ন্যাকস থাকা সত্যিই অপরিহার্য, কিন্তু জোর করে খাওয়া খুব একটা সাহায্য করে না। একটি সময়সূচী অনুসরণ করার চেষ্টা করুন, তাই আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রতিদিন একই সময়ে ক্ষুধার্ত বোধ করবেন।

এছাড়াও, সমস্ত ধরণের খাবার দিয়ে আপনার প্লেটটি পূরণ করবেন না। আপনার ক্ষুধার মাত্রা অনুযায়ী পরিবেশন করুন। এটি অতিরিক্ত খাওয়ার পর্বগুলি প্রতিরোধ করবে এবং আপনার শরীর সঠিকভাবে খাবার হজম করার সময় পাবে।

আপনার খাবার চিবিয়ে খান:

মুখের মধ্যে হজম প্রক্রিয়া শুরু হয়। আমাদের দাঁত খাবারকে ছোট ছোট টুকরো করে ভেঙ্গে ফেলে যা হজমকারী এনজাইমের পক্ষে এটিকে আরও ভেঙে ফেলা সহজ করে। দুর্বল চিবানো পুষ্টির কম শোষণের সাথে যুক্ত। চিবানো স্ট্রেস লেভেল কমাতে এবং হজমশক্তি উন্নত করতেও সাহায্য করে। তাই খাবার খাওয়ার সময় ধীরে ধীরে খাবার ঠিকমতো চিবিয়ে নিন।

বেমানান খাদ্য আইটেম খাবেন না:

সঠিক খাওয়ার পাশাপাশি আপনাকে একে অপরের সাথে খাবারের সঠিক গ্রুপ যুক্ত করার বিষয়েও সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। ফল বা শাকসবজির সাথে দুধ, ডিম বা ফলের সাথে মটরশুটি খাওয়ার মতো বেমানান খাবারও আপনার হজমের স্বাস্থ্যকে ব্যাহত করতে পারে। ভুলভাবে জোড়া খাবার খেলে বদহজমের ঝুঁকি বাড়তে পারে। অন্যদিকে, খাবারগুলিকে সঠিকভাবে যুক্ত করা হজম প্রক্রিয়াকেও দ্রুত করতে পারে।

হাইড্রেটেড থাকুন:

জল আমাদের শরীরে বিভিন্ন কাজ করে এবং সবচেয়ে সাধারণ কাজ হল খাবার হজম করা। কম তরল গ্রহণের ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যা যেমন মাথাব্যথা এবং কিডনিতে পাথর হতে পারে। ডিহাইড্রেশন আপনাকে ক্ষুধার্ত বোধ করতে পারে এবং আপনাকে অতিরিক্ত খাওয়াতেও পারে। সুতরাং, নিশ্চিত করুন যে আপনি দিনে পর্যাপ্ত তরল পান করেন। এর মধ্যে রয়েছে জল, তাজা চেপে রাখা রস এবং ভেষজ চা।