স্ত্রী হত্যার অভিযোগ, স্বামী পলাতক

85

মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার সোলধারা গ্রামে স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামী রুপকের পালিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এখনও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রুপক তার আহত মাকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে পালিয়ে যান। মেয়েকে হত্যার অভিযোগে রুপকের বিরুদ্ধে ঘিওর থানায় বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে বারটায় মামলা করেন সুমীর বাবা রহম আলী।রুপকের মামা অ্যাডভোকেট রওশন আলম বলেন, আমার বোনকে হাসপাতালে ভর্তি করে ভাগ্নে রুপক পালিয়ে যায়। বোনের অবস্থা আগের চেয়ে একটু ভাল বলে শুনেছি তবে শঙ্কা মুক্ত নয়। ঘটনার পর থেকে কারো সাথে আর যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

গতকাল বৃহস্পতিবার ঘিওর উপজেলার সোলধারা গ্রামের স্বামী রুপকের বাড়ি থেকে স্ত্রী সুমী আক্তারের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। রুপক তার আহত মাকে নিয়ে সাভারের হাসপাতালে ভর্তি করে গা ঢাকা দিয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত নিহতের স্বামী রুপকের কোন সন্ধান পায়নি পুলিশ। 

ঘিওর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বিপ্লব জানান, মেয়ে হত্যার বিষয়ে জামাই রুপককে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেছে নিহতের বাবা রহম আলী। ঘটনার পর থেকেই রুপক গা ঢাকা দিয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি আসামিকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে।