ঢাকার ৯৫% প্রাথমিক স্কুলশিক্ষার্থীর লালায় উচ্চমাত্রায় নিকোটিন

148
ভয়ংকর তথ্য : ঢাকার ৯৫% প্রাথমিক স্কুলশিক্ষার্থীর লালায় উচ্চমাত্রায় নিকোটিন
ভয়ংকর তথ্য : ঢাকার ৯৫% প্রাথমিক স্কুলশিক্ষার্থীর লালায় উচ্চমাত্রায় নিকোটিন

ঢাকা শহরের প্রাথমিক বিদ্যালয়গামী শিশুদের ওপর পরিচালিত এক গবেষণায় শতকরা ৯৫ ভাগের মুখের লালাতে উচ্চ মাত্রায় নিকোটিন পাওয়া গেছে যা মূলত পরোক্ষ ধূমপানের ফল। শুধু তাই নয়, প্রতিবছর প্রায় ৬১,০০০ শিশু পরোক্ষ ধূমপানজনিত বিভিন্ন অসুখে ভুগছে।

এছাড়া গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোব্যাকো সার্ভের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশে আচ্ছাদিত কর্মস্থলে কাজ করেন এমন প্রাপ্ত বয়স্ক জনগোষ্ঠীর ৪২.৭ শতাংশ (৮১ লক্ষ) এবং প্রায় ২৪ শতাংশ (২ কোটি ৫০ লক্ষ) প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষ গণপরিবহনে যাতায়াতের সময় পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হন।

এমন ভয়ংকর পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে সকল পাবলিক প্লেস এবং পাবলিক পরিবহনে শতভাগ ধূমপানমুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিতে আজ শনিবার, ২৩ জুলাই কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দুই দিনব্যাপী আয়োজিত এসডিজি ইয়ুথ সামিট- ২০২২ এর প্রথম দিনের কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিডস (সিটিএফকে) এর সহযোগিতায় এই র‌্যালি আয়োজন করা হয়। শিক্ষার্থীসহ প্রায় তিন শতাধিক তরুণ এই র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন।

র‌্যালি শেষে বক্তারা জানান, পরোক্ষ ধূমপান মৃত্যু ঘটায়। বাংলাদেশে বর্তমান তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের আওতায় সকল পাবলিক প্লেস এবং পাবলিক পরিবহনে শতভাগ ধূমপানমুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করার সুযোগ না থাকায় পরোক্ষ ধূমপানের ক্ষতি থেকে জনস্বাস্থ্যকে সুরক্ষা প্রদান করা সম্ভব হচ্ছে না। পরোক্ষ ধূমপানের ক্ষতি থেকে মানুষের জীবন রক্ষায় অবিলম্বে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনের মাধ্যমে সকল পাবলিক প্লেস এবং পাবলিক পরিবহনে শতভাগ ধূমপানমুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করার পক্ষে জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য র‌্যালিটি আয়োজন করা হয়।