সিলেটেজুড়ে অতিরিক্ত গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন

117

আবুল কাশেম রুমন, সিলেট থেকে : টানা বন্যার পর এবার সিলেটজুড়ে দেখা দিয়েছে খরতাপ। অতিরিক্ত গরমে সিলেটের জনজীবন গৃহবন্দী হয়ে পড়েছে। দেখা দিয়েছে জ্বর, সর্দি ও কাশির প্রাদুর্ভাব। বেশির ভাগ আক্রান্ত হচ্ছেন শিশু ও বৃদ্ধারা।

ঈদের দিন থেকে সিলেটে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এরপর সোমবার (১১ জুলাই) থেকে সিলেটে ক্রমশ তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করে। সোমবার সিলেটে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর মঙ্গলবার (১২ জুলাই) তাপমাত্রা ৩৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি  সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। আর বুধবারের তাপমাত্রাও ছিল ৩৬ ডিগ্রী সেলসিয়াসের ওপরে। (বৃহস্পতিবার) ১৪ জুলাই তাপমাত্রা ৩৬ দশমিক ৬ডিগ্রী সেলসিয়াস যা বলা যাচ্ছে উর্ধ্বমূখী। এই তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে সিলেট আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার।

সিলেট আবহাওয়া কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ জানান, ঈদের আগে থেকে সিলেটে তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এবার ঈদও কেটেছে বৃষ্টিহীন। বর্ষা মৌসুম শুরু হলেও বৃষ্টি নেই সিলেটে। তাই তাপপ্রবাহ দীর্ঘমেয়াদি রূপ নিয়েছে। মার্চ-এপ্রিলের তীব্র তাপপ্রবাহের পর থেকে সিলেটের ওপর দিয়ে কখনও মৃদু আবার কখনও মাঝারি তাপপ্রবাহ বইছে। ভারী বর্ষণ শুরু না হওয়া পর্যন্ত এই তাপপ্রবাহ প্রশমিত হওয়ার আপত কোনো সম্ভাবনা নেই।  

এদিকে সপ্তাহের শেষে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, শনিবার (১৬ জুলাই) থেকে তাপমাত্রা কমার সম্ভাবনা আছে, সেদিন নগরীসহ সিলেটের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিপাত হতে পারে বলেও জানান সিলেট আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের এই আবহাওয়াা কর্মকর্তা।