সন্তানের গলায় ছু-রি ঠেকিয়ে মাকে বিবস্ত্র করে গ-ণ-ধ-র্ষ-ণ

386
ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে শিশু সন্তানের গলায় ছু-রি ঠেকিয়ে ২৮ বছর বয়সী এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধ-র্ষ-ণে-র অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে শিশু সন্তানের গলায় ছু-রি ঠেকিয়ে ২৮ বছর বয়সী এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধ-র্ষ-ণে-র অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আনোয়ার হোসেন আকাশ, রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে শিশু সন্তানের গলায় ছু-রি ঠেকিয়ে ২৮ বছর বয়সী এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধ-র্ষ-ণে-র অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অপহরণের পর সংঘবদ্ধ ধ-র্ষ-ণ করা হয়েছে বলে থানায় অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ। তিনি জানান, স্বামীর বন্ধুর বাড়ি থেকে বোনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এই ঘটনা ঘটে।

শনিবার, ২০ আগস্ট হরিপুর থানায় ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন। এর আগে শুক্রবার, ১৯ আগস্ট বিকেলে রানীশংকৈল উপজেলার বকুয়া ইউনিয়নের চাপধা বাজার এলাকার একটি আমবাগানে এ ঘটনা ঘটে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দক্ষিণ পাড়িয়া এলাকার ওই গৃহবধূ শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে তার সাত বছর বয়সী ছেলে মাসুমকে নিয়ে হরিপুর উপজেলার রুহিয়া এলাকায় স্বামীর বন্ধুর বাড়ি থেকে বোনের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। এসময় রাণীশংকৈল উপজেলার কামারপুকুর অটো স্ট্যান্ড থেকে ভিকটিমকে অটোযোগে অপহরণ করে বকুয়া ইউনিয়নের চাপধা বাজারের পূর্ব-উত্তর পাশে একটি আম বাগানের ভেতরে নিয়ে যাওয়া হয়। বাগানের ভেতরে অপহরণকারীরা ওই গৃহবধূর ছেলে মাসুমের গলায় ছু-রি ঠেকিয়ে জিম্মি করে। এরপর সন্তানের সামনেই মাকে বিবস্ত্র করে পর্যায়ক্রমে গ-ণ-ধ-র্ষ-ণ করে।

মামলার আসামিরা হলেন- হরিপুর উপজেলার বকুয়া ইউনিয়নের হাটপুকুর গ্রামের সলেমান আলীর ছেলে ফজলুর রহমান (২২), চাপধা পিপলা গ্রামের করিমুল ইসলামের ছেলে রিসাদ (২১), একই এলাকার গুচ্ছগ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে আকাশ (২২) এবং রকিম ও লসকর নামে অজ্ঞাত দুজন।

পুলিশ জানায়, ভুক্তভোগী ওই নারী দুই সন্তানের মা। গত শুক্রবার বিকেলে হরিপুর উপজেলার রুহিয়া চাপধা এলাকার এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে রানীশংকৈল হয়ে বোনের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথে রানীশংকৈল উপজেলার কামারপুকুর বাসস্ট্যান্ডে কয়েক যুবক অটোচালকের যোগসাজসে ওই নারীকে কৌশলে তুলে নিয়ে যায়।

পরে বকুয়া ইউনিয়নের চাপধা বাজার এলাকার একটি আমবাগানের ভেতরে নিয়ে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধ-র্ষ-ণ করে। এ সময় তার সঙ্গে থাকা সাত বছরের ছেলের গলায় ছু-রি ধরে ভয়ভীতি দেখায় ধ-র্ষ-ক-রা। এরপর তারা রাত ১২টার দিকে ওই ভিকটিম নারীকে রাস্তার পাশে ফেলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় স্থানীয় লোকজন ফজলুর রহমান নামে একজনকে আটক করে ৯৯৯-এ ফোন দেন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ ওই নারীকে উদ্ধার করে। জনতার হাতে আটক ধ-র্ষ-ক ফজলুর রহমান ও ভিকটিমের দেয়া তথ্য অনুযায়ী হরিপুর থানা পুলিশ শুক্রবার রাতেই অভিযান চালিয়ে রিসাদ ও আকাশ নামের দুই যুবককে আটক করে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই নারী বাদী হয়ে পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে শনিবার হরিপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে হরিপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন জানান, অভিযুক্ত পাঁচ আসামির মধ্যে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে রাতে আদালতে বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে ২২ ধারায় জবানবন্দিতে তারা নিজেদের অপরাধ স্বীকার করেন। আদালতের নির্দেশক্রমে তাদের কারাগারের পাঠানো হয়েছে। এছাড়া অন্য দুই আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

এদিকে ঘটনার পর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ভুক্তভোগী নারীকে ঠাকুরগাঁও জেনারেল হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার রকিবুল আলম বলেন, ভুক্তভোগী ওই নারী পরীক্ষার জন্য এসেছিলেন। কয়েক দিনের মধ্যে রিপোর্ট পাওয়া যাবে।