শ্রীলঙ্কাকে দেওয়া ২৫ কোটি ডলার ফেরত পাওয়া যাবে কি?

200
২০২১ সালে রিজার্ভ থেকে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দিয়ে শ্রীলঙ্কার পাশে দাঁড়িয়েছিল বাংলাদেশ। শর্ত ছিল, তিন মাসের মধ্যে ঋণের অর্থ পরিশোধ করবে দেশটি। কিন্তু সে শর্ত পূরণে অনেক আগেই ব্যর্থ হয়েছে শ্রীলঙ্কা।
২০২১ সালে রিজার্ভ থেকে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দিয়ে শ্রীলঙ্কার পাশে দাঁড়িয়েছিল বাংলাদেশ। শর্ত ছিল, তিন মাসের মধ্যে ঋণের অর্থ পরিশোধ করবে দেশটি। কিন্তু সে শর্ত পূরণে অনেক আগেই ব্যর্থ হয়েছে শ্রীলঙ্কা।

শ্রীলঙ্কায় ইতিহাসের ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকট সৃষ্টি হওয়ায় বাংলাদেশের ২৫ কোটি ডলার দেয়া ঋণ ফেরত পাওয়া নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে।

২০২১ সালে রিজার্ভ থেকে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দিয়ে শ্রীলঙ্কার পাশে দাঁড়িয়েছিল বাংলাদেশ। শর্ত ছিল, তিন মাসের মধ্যে ঋণের অর্থ পরিশোধ করবে দেশটি। কিন্তু সে শর্ত পূরণে অনেক আগেই ব্যর্থ হয়েছে শ্রীলঙ্কা।

উল্লেখ্য, ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মুখে রয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপদেশ শ্রীলঙ্কা। স্বাভাবিকের চেয়ে বহুগুণ বেশি দাম দিয়েও বাজারে খাদ্য ও জ্বালানি পণ্য পাচ্ছে না দেশটির নাগরিকরা। ১৯৪৮ সালে স্বাধীনতা লাভের পর থেকে কখনো এতটা খারাপ অবস্থা পার করতে হয়নি দেশটিকে।

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে বড় ধরনের ঘাটতি তৈরি হয়েছে শ্রীলঙ্কায়। দেশটির রিজার্ভ ২ বিলিয়ন ডলারের ঘরে নেমে এসেছে। অথচ ২০২৩ সালের মধ্যে ৭.৩ বিলিয়ন ডলার ঋণ পরিশোধের বোঝা ঝুলছে দেশটির ওপর।

বৈদেশিক মুদ্রার তীব্র সংকটের মধ্যেই গত বছর শ্রীলঙ্কান প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসের অনুরোধে দেশটিকে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দেয় বাংলাদেশ। মুদ্রা বিনিময় চুক্তির আওতায় এই ঋণ দেওয়া হয়েছিল। শর্ত ছিল- প্রথম কিস্তি পরিশোধ করার জন্য শ্রীলঙ্কা ৩ মাস সময় পাবে। সুদের হার হবে লন্ডন আন্তঃব্যাংক সুদের হারের সঙ্গে অতিরিক্ত দুই শতাংশ। প্রথম ৩ মাসে ঋণ শোধ করতে না পারলে শ্রীলঙ্কাকে আরও ৩ মাস সময় দেওয়া হবে। দ্বিতীয়বারও সুদের হার সমান হবে। আর ৬ মাস অতিক্রান্ত হওয়ার পর থেকে পরবর্তী ৩ মাসে সুদের হার হবে লন্ডন আন্তঃব্যাংক সুদের হারের সঙ্গে অতিরিক্ত ২.৫ শতাংশ।