শারীরিক প্রতিবন্ধকতা দাবিয়ে রাখতে পারেনি মিষ্টারকে

91

গোলাম রব্বানী—টিটু, (শেরপুর) প্রতিনিধিঃ শারীরিক প্রতিবন্ধকতা দাবিয়ে পারেনি শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার মিষ্টার মিয়াকে। সকল বাঁধা বিপত্তিকে জয় করে উজ্জল ভবিষ্যতের স্বপ্ন নিয়ে এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছে। সে ঝিনাইগাতী উপজেলার আহমদ নগর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। মিষ্টার উপজেলার মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের জোলগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের পুত্র। সে শারীরিক ও বাকপ্রতিবন্ধী।

জানা যায়, মিষ্টার এর বাবা জোলগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। মা ২০০২ সালে মারা যাওয়ার পর তার বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করেন। পরে ২০০৬ সালে বাবা মারা যান। তারা ৪ভাই ৩ বোন। বড় ভাই ও মেজো ভাই ঢাকায় পোশাক শ্রমিক, আরেক ভাই কৃষিকাজ করেন এবং সে সবার ছোট। সংসারে নানা অভাব—অনটনের পরও পড়ালেখা চালিয়ে যান। জুলগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পিএসসি ও ঘাগড়া এফ রহমান উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জেএসসি পাশ করে। পরবর্তীতে উচ্চশিক্ষার জন্য আহম্মদনগর উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। এর ধারাবাহিতকতায় এবার এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে মিষ্টার আলী। তার কেন্দ্র পড়েছে ডাঃ সেরাজল হক টেকনিক্যাল অ্যান্ড কৃষি ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউটে।

মিষ্টার আলী জানায়, তার হাঁটতে ও কথা বলতে সমস্যা হয়। তার পরও সে পড়ালেখা চালিয়ে যেতে চায়। কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার ইচ্ছা তার। এই সমাজের প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সরকারি বেসরকারী সহযোগীতার প্রয়োজন। কারণ তারাও মানুষ তাদেরকেও মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনা দরকার।

ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারুক আল মাসুদ বলেন, এবার এসএসসি পরীক্ষায় ঝিনাইগাতীর এক প্রতিবন্ধী পরীক্ষা দিচ্ছে সে অত্যান্ত মেধাবী। তার পরীক্ষা গুরুত্বসহকারে নেওয়ার ব্যবস্থা করে দেয়া হয়েছে। ইচ্ছায় মানুষের শক্তি হয়ে স্বপ্নে পরিণত হয় বলে তিনি জানান ।