রিয়েলমির তিনটি নতুন ডিভাইস উন্মোচন

98

ফটোগ্রাফি ও প্রযুক্তিপ্রেমী স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহারকারীদের জীবনে নতুন মাত্রা যোগ করতে তরুণদের পছন্দের ব্র্যান্ড রিয়েলমি তিনটি নতুন ডিভাইস- রিয়েলমি ৯ প্রো প্লাস ৫জি, ৯ প্রো ৫জি এবং প্যাড মিনি উন্মোচন করেছে।

নতুন এই ডিভাইসগুলো ১৯ জুলাই উন্মোচন করা হয়েছে। ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি রম-সহ রিয়েলমি ৯ প্রো প্লাস ৫জি লাইট শিফট ডিজাইনের সানরাইজ ব্লু এবং অরোরা গ্রিন এই দুইটি রঙে পাওয়া যাবে। চমৎকার এই ফোনটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে মাত্র ৩৯,৯৯০ টাকা (ভ্যাট প্রযোজ্য)। এছাড়াও, রিয়েলমি ৯ প্রো এর দাম মাত্র ৩১,৯৯০ টাকা (ভ্যাট প্রযোজ্য)। পাশাপাশি, ২০ জুলাই বেলা ৩টায় দারাজের ফ্ল্যাশ সেল থেকে ৯ প্রো ৫জি সিরিজের এই দুটি ফোনই বিশেষ মূল্যে ক্রয় করা যাবে।

এই প্রথম মিডরেঞ্জে সনি আইএমএক্স৭৬৬ ওআইএস ফ্ল্যাগশিপ ক্যামেরা-সহ আসলো রিয়েলমি ৯ প্রো প্লাস ৫জি । বাজারে থাকা একই দামের অন্যান্য ফোনগুলোর তুলনায় এই ফোনটি স্বল্প আলোতেও অনেক ভালো ছবি তুলতে সক্ষম। একই দামের তালিকায় থাকা ফোনগুলোর মধ্যে রিয়েলমি ৯ প্রো প্লাস দিচ্ছে সবচেয়ে ভালো প্রাইমারি ক্যামেরা।

ক্যামেরাটির সেন্সর ৬৮% পর্যন্ত বেশি আলো ধারণ করে ছবি তুলতে সক্ষম, যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা আগের জেনারেশনের ফোনগুলোর তুলনায় এ স্মার্টফোনটি দিয়ে আরও উজ্জ্বল ছবি তুলতে পারবেন। ফ্ল্যাগশিপ সনি আইএমএক্স৭৬৬ সেন্সরের সাথে প্রোলাইট ইমেজিং প্রযুক্তির সমন্বয়ের কারণে স্মার্ট ডিভাইসটি দারুণ আউটপুট দিবে। ফোনটিতে আরও থাকছে মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৯২০ ফাইভজি প্রসেসর, যা ফ্ল্যাগশিপ ৬ ন্যনোমিটারের উন্নত ৫জি প্রসেসর; আনটুটু -তে যার স্কোর ৫০০,০০০ এর ওপর।

গেমিং করার ক্ষেত্রে এই প্রসেসর ব্যবহারকারীদের দিবে আগের জেনারেশনের ডাইমেনসিটি চিপের তুলনায় অনেক বেশি স্মুথ ও নিখুঁত পারফরমেন্স। উন্নত মানের এই প্রসেসরের কারণে এই ফোনটির পারফরমেন্স মিড্ রেঞ্জে সেরা । ফটোক্রোমিজম প্রযুক্তি থাকায় লাইট শিফট করতে পারে রিয়েলমি ৯ প্রো ৫জি সিরিজের ফোনের ব্যাকশেল।

লাইট শিফট ডিজাইনের প্রথম ফোন হিসেবে এই ফোনটি ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হয়েছে। ফটোক্রোমিজমের কারণে ফোনটির পেছনের অংশ সূর্যের আলোয় বা ইউভি লাইটের সংস্পর্শে মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই নীল থেকে লাল রঙ ধারণ করে। মাত্র ৭.৯৯ মিলিমিটার পুরুত্ব ও ১৮২ গ্রাম ওজনের রিয়েলমি ৯ প্রো প্লাস ৫জি ফোনটি নাম্বার সিরিজের ফোনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে স্লিম। একই সেগমেন্টের থাকা ফোনগুলোর মধ্যে রিয়েলমি ৯ প্রো প্লাসের ডিজাইন সবচেয়ে সুন্দর।

সেরা ক্যামেরা, প্রসেসর এবং ডিজাইনের সৌন্দর্য্যের পাশাপাশি ফোনটিতে আরও থাকছে ৯০ হার্টজের সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে, ৬০ ওয়াট সুপার ডার্ট চার্জিং, ভ্যাপর চেম্বার কুলিং প্লাস সিস্টেম, ডুয়েল স্টেরিও স্পিকার এবং গরিলা গ্লাস ৫ এর প্রকেটশন। ডিভাইসটি ইতিমধ্যে বাজারে মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। দারাজে ২০ জুলাই ফ্ল্যাশ সেল চলাকালে বিশেষ মূল্যে ফোনটি পাওয়া যাবে মাত্র ৩৬,৭৯০ টাকায়।

অন্যদিকে রিয়েলমি ৯ প্রো ৫জি-তে রয়েছে এই সেগমেন্টের মধ্যে প্রথম স্ন্যাপড্রাগন ৬৯৫ ৫জি প্রসেসর, ১২০ হার্টজ আলট্রা স্মুথ ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লে, ৬৪ মেগাপিক্সেল নাইটস্কেপ ক্যামেরা। থাকছে ৫০০০ এমএএইচ বিশাল ব্যাটারি এবং ৩৩ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার। রিয়েলমি ৯ প্রো ৫ জি-তে থাকছে দুর্দান্ত লাইট শিফট ডিজাইন। দারাজে ২০ জুলাই ফ্ল্যাশ সেল চলাকালে বিশেষ মূল্যে ফোনটি পাওয়া যাবে মাত্র ২৯,৪৯০ টাকায়।

এদিকে রিয়েলমি প্যাড মিনি-তে থাকছে এই প্রাইজ সেগমেন্টের মধ্যে সর্বপ্রথম ইউনিবডি ডিজাইন। যাতে করে ব্যবহারকারীরা তাদের দৈনন্দিন কাজগুলো করতে স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ অভিজ্ঞতা লাভ করেন। থাকছে ৮.৭ ইঞ্চি ও ৭.৬ মিলিমিটার আল্ট্রা-স্লিম ডিসপ্লে। ডিভাইসটির নিখুঁত আকার এর ব্যবহারকারীদের বড় স্ক্রিনের ডিভাইসের চাহিদা পূরণ করবে। ৬৪০০ এমএএইচ শক্তিশালী ব্যাটারির কারণে এর ব্যবহারকারীরা হঠাৎ চার্জ শেষ হয়ে যাবার চিন্তামুক্ত থাকবেন।

উল্লেখ্য, রিয়েলমি আগামী ৩ বছরের মধ্যে তরুণ ব্যবহারকারীদের কাছে ১০ কোটি ৫জি ফোন সরবরাহের লক্ষ্যে ৫জি পণ্যের এক বিস্তৃত পোর্টফোলিও তৈরিতে কাজ করছে। রিয়েলমি তাদের উন্নত ‘১+৫+টি’কৌশলের সাথে এআইওটি ২.০ বিকাশের পর্যায়ে প্রবেশ করেছে। এর ফলে সাশ্রয়ী মূল্যের ৫জি ফোন ছাড়াও রিয়েলমি তরুণ প্রজন্মের ক্রেতাদের জন্য আরও অনেক এআইওটি পণ্য বাজারে নিয়ে আসবে।