রাণীশংকৈলে সড়কের পাশের মৃত গাছ কেটে নিচ্ছে অজ্ঞাতরা, ঝুকিপূর্ণ সড়ক

132

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধি: ব্যাস্ততম সড়কের দু-ধারে বড় আকৃতির গাছ মৃত হয়ে দাড়িয়ে রয়েছে,শুধু মৃত নয় সে গাছের গোড়ার কাঠ ধীরে ধীরে কেটে কেটে নিয়ে যাচ্ছে অজ্ঞাতরা। আর গাছের গোড়া কেটে নেওয়ায় যেকোন সময় গাছগুলো পড়ে যেতে পারে সড়কের উপরে এতে পথচারীরা হতে পারে দূর্ঘটনার শিকার।

এমন ঝুকি নিয়েই ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল পৌরশহরের শান্তিপুর থেকে কাঠাঁলডাঙ্গী সড়কে চলাচল করছে পথচারীরা। জানা গেছে, সড়কের পাশের গাছগুলো জেলা পরিষদ ও বনবিভাগের আওতায় রয়েছে।

শান্তিপুর থেকে কাঠালডাঙ্গী সড়কের মোট দুরুত্ব প্রায় ৮ কিলোমিটার। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, এ সড়কের দুধারে ইউকিল্যাপটাস ও মেহগণিসহ বিভিন্ন প্রজাতের গাছ রযেছে। গাছগুলোর মধ্যে অনেক গাছের ডাল পালার পাতা শুকিয়ে মৃত হয়ে দাড়িয়ে রয়েছে।

মৃত গাছগুলোর অনেক ডাল পালা কাটা অবস্থায় রয়েছে। কোন গাছের ডাল পালা একেবারে মুড়িয়ে কাটা রয়েছে। মৃত গাছগুলোর প্রায় সবগুলোর গোড়ায় ধারালো অস্ত্রের মাধ্যমে গোড়ার কাঠ কেটে নেওয়ার চিত্র দেখা মিলে। গোড়া কাটা দেখে মনে হয় ধীরে ধীরে এ গাছগুলোর গোড়া কেটে চিকন করা হচ্ছে। গাছগুলো দ্রুত অপসারণ করা না হলে যে কোন সময় গাছ আচড়ে পড়ে পথচারীরা হতে পারে মারাত্নক দূর্ঘটনার শিকার।

প্রতিবেদকের মতে শুধু শান্তিপুর থেকে ডায়াবেটিস পর্যন্ত ১ কিলোমিটার সড়কে ২৫ টির অধিক গাছ মৃত অবস্থায় দাড়িয়ে রয়েছে। অনেক গাছের ডাল পালা মুড়িয়ে কাটা রয়েছে। কোন কোন গাছের গোড়া আবার কেটে চিকন করে রাখা হয়েছে। যা অত্যন্ত ঝুকি পথচারীদের জন্য।

স্থানীয়রা জানায়, মৃত গাছগুলো সড়কের ধারে অত্যন্ত ঝুকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। তারা আরো জানান, রাতের আধারে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা মৃত গাছগুলোর ডাল পালাসহ গাছের গোড়ালি কেটে গোড়া চিকন করে এক সময় গাছ উধাও করে ফেলছেন। স্থানীয়রা দাবী তুলেছেন দ্রুত গাছগুলো অপসারণ করা হোক। না হলে একদিকে যেমন গাছগুলো ধীরে ধীরে উধাও হয়ে যাবে,অন্যদিকে সড়কের পথচারীরা যে কোন মুহুর্তে পড়বে দূর্ঘটনার কবলে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির স্টিভ মুঠোফোনে বলেন, সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে গাছগুলো অপসারণের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

জানতে চাইলে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রামকৃষ্ণ বর্মণ মুঠোফোনে বলেন, গাছগুলোর খোজ নিয়ে দ্রুত ওর্য়াকশনে দেওয়া হবে।