রাণীশংকৈলে জাতীয় যুব সংহতির দ্বিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

192

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ ইউনিয়নে জাতীয় যুব সংহতির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২ এপ্রিল) বিকালে উপজেলার নেকমরদ ইউনিয়নে কাঁচাবাজার ধানহাটি মাঠ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠানে ইউনিয়ন যুব সংহতির সভাপতি আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জাতীয় পাটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক সাংসদ হাফিজউদ্দিন আহমেদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পীরগঞ্জ জাতীয় পাটির সহ-সভাপতি দবির ইসলাম, রাণীশংকৈল উপজেলা জাতীয় পাটির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু তাহের।

প্রধান বক্তার বক্তব্য দেন জেলা জাতীয় যুব সংহতির সদস্য সচিব ও প্যানাল মেয়র(২) ইসহাক আলী।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় যুব সংহতির পীরগঞ্জ উপজেলার সাধারণ সম্পাদক জহির আহমেদ, উপজেলার যুব সংহতির সভাপতি গফুর আলী প্রমুখ।

অনুষ্ঠান সঞ্চলনা করেন, নেকমরদ ইউনিয়নের যুব সংহতির সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রাজু।

সম্মেলন শেষে আব্দুল ফাত্তাহ কে
সভাপতি ও রাজিউর রাজুকে সাধারণ সম্পাদক করে ৫১ সদস্যের জাতীয় যুব সংহতির কমিটি ঘোষণা করা হয়।

জাতীয় পাটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক সাংসদ হাফিজউদ্দিন আহমেদ বলেন,
জাতীয় পার্টির সব নেতাকর্মীদের পার্টির পতাকা তলে একতাবদ্ধ হয়ে আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য কাজ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আগামীতে জিএম কাদেরের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় এলে দেশ ও দেশের মানুষ শান্তিতে থাকবে। এ দেশে রাস্তাঘাট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাসপাতালসহ যত উন্নয়ন হয়েছে, তা হয়েছে জাতীয় পার্টির আমলে। জাতীয় পার্টির প্রয়াত চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এ দেশের উন্নয়নের রূপকার।

সাংগঠনিক সম্পাদক আবু তাহের বলেন,
পিকে হালদার ও তার দোসররা দেশের হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে এবং বর্তমানেও করছে। নিত্যপণ্যের দাম এখন সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। শিক্ষা ব্যবস্থা এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। এ অবস্থায় দেশের মানুষ জাতীয় পার্টির দিকে তাকিয়ে আছে। 

তিনি বলেন, প্রতিটি ঘরে ঘরে গিয়ে সাধারণ মানুষকে জাতীয় পার্টির কথা বলতে হবে। জাতীয় পার্টির সময়কার উন্নয়নের কথা স্মরণ করিয়ে দিতে হবে।