রাজধানীতে গাঁজার নির্যাস দিয়ে কেকসহ নানা খাবার তৈরি ও বিক্রি, আটক ৩ (ভিডিও)

210

গাঁজার নির্যাস দিয়ে তৈরি কেক, চকলেটসহ হরেক রকম খাবার তৈরি ও বিক্রির দায়ে রাজধানীতে এক তরুণী ও দুই তরুণকে আটক করেছে গুলশান থানা পুলিশ।

অভিনব উপায়ে ইন্সটাগ্রামে অর্ডার নেওয়া হতো এসব গাঁজার তৈরি খাবার হোম ডেলিভারির জন্য। অর্ডার পাওয়ার পর গ্রাহকের বাসায় পৌঁছে দিত এই চক্রের সদস্য হিসেবে কাজ করা ডেলিভারিম্যান।

সোমবার, ৩০ মে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য জানাতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে গুলশান থানা পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রোববার বিকেলে দিকে রাজধানীর গুলশান ৬ নম্বর রোড থেকে মোটরসাইকেলসহ একজন ডেলিভারিম্যানকে আটক করে পুলিশ। পরবর্তী সময়ে তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী রাজধানীর উত্তরা থেকে গাঁজার নির্যাস দিয়ে খাবার তৈরি ও অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রি চক্রের অন্য দুই সদস্যকে আটক করা হয়। এসময় গাঁজার নির্যাস দিয়ে তৈরি কেক, মিল্কশেক, চকোলেটসহ হরেক রকম খাবার এবং খাবার তৈরির উপকরণ জব্দ করা হয়।

আটককৃত তিনজন হলেন রাজধানীর দক্ষিণখানের ডেলিভারিম্যান জুবায়ের হোসেন (২৪), উত্তরার নাফিজা নাজা (২২) ও অনুভব খান রিবু (২৩)।

আটককৃত তিনজনের কাছ থেকে প্রায় এক কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। গাঁজার নির্যাস দিয়ে তৈরি কেক, মিল্কশেক, চকোলেটসহ ছয় কেজি ওজনের বিভিন্ন ধরনের খাবারও উদ্ধার করা হয় তাদের কাছ থেকে। এছাড়া উদ্ধার করা হয় গাঁজার নির্যাস দিয়ে খাবার তৈরির বিভিন্ন ধরনের উপকরণ। এসময় জব্দ করা হয় আইফোন এবং ল্যাপটপ।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা জানান, অনলাইনে ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে অর্ডার নেওয়ার পর রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পৌঁছে দেওয়া হতো গাঁজার নির্যাস দিয়ে তৈরি নানা ধরনের খাবার। তারা ইনস্টাগ্রামে আফ্রিকা ও কানাডার মাদক ব্যবসায়ীদের তৈরি বিভিন্ন ভিডিও দেখে গাঁজার নির্যাস দিয়ে খাবার তৈরি করে বিক্রিতে উদ্বুদ্ধ হন। এরপর নিজেরাই দেশীয় পদ্ধতিতে গাঁজার নির্যাস দিয়ে খাবার বানানো শুরু করেন। তারা আরও জানান, ১ কেজি গাঁজার চকলেট তৈরি করতে ৫ কেজি পর্যন্ত গাঁজার নির্যাস লাগে।