যশোরে লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে মারধর, সন্ত্রাসী বুনো আসাদের নামে মামলা

115
যশোরে লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে মারধর করায় সন্ত্রাসী বুনো আসাদের নামে মামলা
যশোরে লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে মারধর করায় সন্ত্রাসী বুনো আসাদের নামে মামলা

ইয়ানূর রহমান, যশোর থেকে : যশোর শহরের পঞ্চাশোর্ধ্ব ব্যবসায়ী তরুণ কুমার চক্রবর্তীর কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে মারধরের ঘটনায় চিহ্নিত সন্ত্রাসী বুনো আসাদসহ দুজনের বিরদ্ধে কোতয়ালি থানায় মামলা করেছেন তরুণ চক্রবর্তী নিজেই। গত শুক্রবার গভীর রাতে মামলাটি নথিভুক্ত করেছে পুলিশ।

কোতয়ালি থানা সূত্রে জানা গেছে, আসামি বুনো আসাদ বেজপাড়া বুনোপাড়ার মৃত আহম্মদ আলীর ছেলে। আর তার সহযোগী হলো আসাদের বাড়ির ভাড়াটিয়া আবুজার।

মামলার এজাহারে ওই ব্যবসায়ী উল্লেখ করেছেন, আসামি বুনো আসাদ একজন পেশাদার সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ। তার বিরুদ্ধে কোতয়ালি থানায় একাধিক মামলা আছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ২৫ জুন ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীর বাড়ির সামনে এসে তাকে ডাক দেয় সন্ত্রাসী বুনো আসাদ। তিনি বাইরে বের হলে তার কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। তাকে বলা হয়, ৫/৭ দিনের মধ্যে চাঁদার টাকা জোগাড় করে রাখতে। তিনি টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়।

গত শুক্রবার ওই ব্যবসায়ী শহর থেকে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। সকাল ১০টার দিকে বেজপাড়া মেইন রোডের রামের চায়ের দোকানের সামনে পৌঁছালে বুনো আসাদ ও তার সহযোগীরা তাকে দাঁড় করিয়ে চারপাশে ঘিরে ধরে। এরপর চাঁদার টাকা দাবি করে। তিনি টাকা দিতে অস্বীকার করলে বুনো আসাদ ও তার সহযোগীরা চারপাশ থেকে ঘিরে ধরে তাকে মারধর করে। এসময় রড দিয়ে তাকে পিটিয়ে জখম করে বুনো আসাদ।

হামলার শিকার হয়ে ওই ব্যবসায়ী চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা ফের হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে তিনি যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেন। বিকেলে থানায় অভিযোগ করেন। পুলিশ গভীর রাতে মামলাটি রেকর্ড করে।

উল্লেখ্য, এর আগেও বেশ কয়েকবার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন চিহ্নিত সন্ত্রাসী বুনো আসাদ। অস্ত্র ও মাদকসহ ধরা পড়ার ঘটনাও ঘটেছে। তার নামে এক ডজনের বেশি মামলা রয়েছে।