ভোলায় ৫ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা

109

কামরুজ্জামান শাহীন, ভোলা প্রতিনিধি : ভোলায় বাজার তদারকিমূলক অভিযান পরিচালনা করে ভোক্তা অধিকার আইন লঙ্ঘনের দায়ে পাঁচ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

সোমবার (২২ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ভোলা জেলার সহকারী পরিচালক মো. মাহমুদুল হাসানের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় তিনি ভোলা সদর উপজেলার ইলিশা বাসস্ট্যান্ড, সদররোড ও খালপাড়ে
নিত্যপন্যের দোকান, চাউলের আড়ৎ ও জ্বালানী তেলের দোকানে তদারকিমূলক অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানের খবর পেয়ে তড়িঘরি করে কতিপয় চাউল ব্যবসায়ী চাউলের ক্রয় ভাউচার খুঁজতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন এবং মূল্য তালিকায় দাম কমিয়ে দেন। এসময় মূল্য তালিকা ও ক্রয় ভাউচার না থাকা, মূল্যে কারসাজি প্রভৃতি ভোক্তা অধিকার বিরোধী কাজ করা ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন লঙ্ঘনের অপরাধে চাকলাদার ট্রেডার্সকে ২ হাজার টাকা, হাওলাদার রাইসকে ৩ হাজার টাকা, মেসার্স সাদেক ট্রেডার্সকে ২ হাজার টাকা, মেসার্স নোয়ার এন্টারপ্রাইজকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

চাউল ব্যবসায়ীরা সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে চাউলের বাজার একটু কমতির দিকে। তাই তারা আগের বেশি দামের চাউল কম দামে বিক্রয় করে লোকসান দিচ্ছেন। চাউলের বাজার অস্থির হওয়ার পেছনে মিল মালিকরা দায়ী। তারা মূল্য কারসাজি করেন ও ক্রয় ভাউচার দেন না। বাজারে বেচাকেনাও কম।

এছাড়াও জ্বালানী তেল মাপার যন্ত্রে কারচুপির প্রমাণ পাওয়ায় ইলিশা বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন মেসার্স আজিম ট্রেডার্সকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। প্রতিষ্ঠানটির ৫ লিটার যন্ত্রে প্রায় ১০০ মি.লি. কম পাওয়া যায়। এছাড়াও ১ লিটার ও ২ লিটারের তেলের বোতলেও কারচুপি ধরা পড়ে।

অভিযান চলাকালে ভোক্তা অধিকার এর পক্ষ থেকে বেশকিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করা হয়। উপস্থিত ব্যবসায়ীদের দ্রব্যমূল্যের অযৌক্তিক মূল্যবৃদ্ধি থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ভোলা জেলার সহকারী পরিচালক মো. মাহমুদুল হাসান জানান, জনস্বার্থে এই অভিযান চলমান থাকবে।