ভোলায় শিশু নির্যাতনের অভিযোগ, বৃদ্ধা গ্রেফতার

135
ভোলায় শিশু নির্যাতনের অভিযোগ বৃদ্ধা গ্রেফতার
ভোলায় শিশু নির্যাতনের অভিযোগ বৃদ্ধা গ্রেফতার

ভোলা প্রতিনিধি : ভোলার বোরহানউদ্দিন তানিশা (৭) নামের এক শিশুকে নির্যাতনের অভিযোগ ঐ শিশুর দাদী মনোয়ারা বেগম (৫০) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
গ্রেফতারকৃত মনোয়ারা বেগম বোরহানউদ্দিন উপজেলার দেউলা ইউনিয়নের চরটিটিয়া গ্রামের ইউনুসের স্ত্রী।

গত বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) সকাল সাড়ে ১১ টায় উপজেলার দেউলা ইউনিয়নের চরটিটিয়া গ্রামের মাঝি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেজবুকে ছড়িয়ে পরলে তা মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়। এতে মানুষ বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া জানায়। এবং বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসেন।

নির্যাতনের শিকার শিশু তানিশার মা সোনিয়া বেগম জানান, ছয় বছর পূর্বে তানিশার বাবা হারুনের সঙ্গে তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়। সেই থেকে তানিশা হারুনের মায়ের সাথেই থাকে।কিন্তু হঠাৎ করে দুই মাস আগে হারুনের মা মনোয়ারা বেগম তানিশার ভরনপোষনের দায়িত্ব নিবে বলে শিশুটির মা সোনিয়ার কাছ থেকে নিয়ে যায়। তার পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে শিশু তানিশার উপর নির্যাতন করেন শিশুটির দাদী মনোয়রা বেগম।

গত বৃহস্পতিবার ২৩ জুন সকালে মোবাইল হাড়ানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে দাদী মনোয়ারা বেগম তানিশার মাথার চুলের মুঠি ধরে এলোপাতাড়ি ভাবে মাটিতে আছাড় মারেন।এমনকি প্লাস দিয়ে হাতের আঙ্গুল টেনে রক্তাক্ত জখম করে দেয়।এর পর ও শান্ত না হয়ে গাছের সাথে বেধে দিনভর নির্যাতন করেন।পরে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ঘটনার পর শনিবার ২৫ জুন রাতে শিশু তানিশার মা সোনিয়া বেগম বাদী হয়ে বোরহানউদ্দিন থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে ঐ রাতেই পুলিশ মনোয়ারা বেগমকে গ্রেফতার করেন।

বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিন ফকির বলেন, এঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং অভিযুক্ত মানোয়ারা বেগমকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।