ভোলায় আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন কাল, উৎসবের আমেজ নেতা-কর্মীদের মাঝে

67

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলা জেলা আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন হচ্ছে আগামীকাল (১১ জুন) শনিবার। ভোলা সরকারী বালক বিদ্যালয়ের মাঠে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। দীর্ঘ ছয় বছর পর সম্মেলন ঘিরে নেতা-কর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। সম্মেলন সফল করতে দলের পক্ষ থেকে সকল ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।
দলীয় সূত্র জানাযায়, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল কাদের মজনু মোল্লার সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সাবেক শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী আলহাজ¦ তোফায়েল আহমেদ এমপি,

সম্মেলন উদ্বোধন করবেন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেও এমপি এবং প্রধানবক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন।

এছাড়া সম্মেলেনে বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক আবুল হাসনাত আব্দুল্লাাহ এমপি, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ. ফ. ম. বাহাউদ্দিন নাছিম, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদ, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. সিদ্দিকুর রহমান, কার্যনির্বাহী সদস্য গোলাম রব্বানী ও আনিসুর রহমান, ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন, ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল, এবং সভা পরিচালনা করবেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ প্রশাসক আব্দুল মমিন টুলু।

সম্মেলনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এদিকে এই সম্মেলনকে ঘিরে গোটা জেলাব্যাপী দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। কে হচ্ছেন সভাপতি আর কে হচ্ছেন সম্পাদক এই নিয়ে জল্পনা কল্পনা চলছে দলীয় নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের মাঝে।

কেন্দ্রীয় নেতাদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে শহর জুড়ে বিভিন্ন ব্যানার, ফেস্টুন, বিভিন্ন সড়কে তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। এমন আয়োজন ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষে। সম্মেলনে ১ হাজার ২ শত ডেলিগেড কাউন্সিলরসহ প্রায় আড়াই হাজার নেতা-কর্মী উপস্থিত থাকবেন।

সম্মেলনে আগামী তিন বছরের জন্য কে হচ্ছেন সভাপতি আর কে হচ্ছেন সাধারণ সম্পাদক তা নিয়ে উৎসাহ ও উৎকণ্ঠায় রয়েছেন নেতাকর্মীরা। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝেও চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। তবে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নবীন-প্রবীনের সমন্বয়ে একটি শক্তিশালী সবার কাছে গ্রহণযোগ্য কমিটি প্রত্যাশা করছেন দলীয় নেতাকর্মীরা।

একাধিক দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন সফল ও সার্থক করতে ইতিমধ্যে জেলা, উপজেলা, থানা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনগুলোর সাথে বর্ধিত সভা করা হয়েছে। সম্মেলন প্রশ্নে সব নেতা-কর্মী এখন ঐক্যবদ্ধ। সব দ্বিধাদ্বন্দ ভূলে সম্মেলন সফল করার লক্ষে সকলে একত্র হয়ে কাজ করছেন।
সম্মেলন সফল করার লক্ষে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মমিন টুলুকে আহ্বায়ক করে চারটি উপ কমিটি করা হয়েছে।

জানাযায়, ২০১৬ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেই সম্মেলনে সভাপতি ফজলুল কাদের মজনু মোল্লার ও আব্দুল মমিন টুলুকে সাধারন সম্পাদক করা হয়। দীর্ঘ ৬ বছর পর আবার আগামী কাল শনিবার নতুন কমিটি গঠনে জন্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।