ভোক্তাকেও অধিকার রক্ষায় সচেতন হতে হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

ভোক্তাকেও অধিকার রক্ষায় সচেতন হতে হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী
ভোক্তাকেও অধিকার রক্ষায় সচেতন হতে হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, ভোক্তাকেও অধিকার রক্ষায় সচেতন হতে হবে। আমরা সবাই ভোক্তা, একজন ব্যবসায়ীও ভোক্তা। একজন ভোক্তার অধিকার রক্ষায় সবাইকে কাজ করতে হবে। সরকার ভোক্তার অধিকার রক্ষায় আইন করেছে। আইনের কঠোর প্রয়োগ করা হচ্ছে। ভোক্তা সচেতন হলে আইন প্রয়োগ সহজ হয়। ভোক্তার অধিকার নিশ্চিত করতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর ‘ভোক্তা বাতায়ন’ শীর্ষক হটলাইন সার্ভিস চালু করেছে।

যে কোন ভোক্তার অধিকার ক্ষুণ্ন হলে ১৬১২১ নম্বরে ফোন করলেই প্রতিকার পাওয়া যাবে। ভোক্তাকে উৎসাহিত করতে অভিযোগ প্রমাণিত হলে আরোপিত জরিমানার ২৫ শতাংশ তাৎক্ষণিকভাবে ভোক্তা পাচ্ছেন। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের কার্যপরিধি, বিভাগ, জেলা, উপজেলা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে বাড়ানো হয়েছে। সম্মিলিতভাবে কাজ করলে ভোক্তার অধিকার রক্ষা করা সহজ হবে।

মন্ত্রী আজ ঢাকায় ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর আয়োজিত ‘বিশ্বভোক্তা অধিকার দিবস-২০২২’ এর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। এবারে দিবসটির প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘ ডিজিটাল আর্থিক ব্যবস্থায় ন্যায্যতা’।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। স্বাধীন দেশের সুবিধা সবার জন্য নিশ্চিত করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিন-রাত পরিশ্রম করছেন। দেশের মানুষ এখন ডিজিটাল সুবিধা ভোগ করছে। সেই ডিজিটাল সুবিধার অনৈতিক সুবিধা যাতে কেউ নিতে না পারে, সে বিষয়ে সকলকে সচেতন থাকতে হবে। আন্তর্জাতিক বাজারে কিছু পণ্যের মূূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে, সে সুযোগে যাতে কেউ অনৈতিকভাবে লাভবান হতে না পারেন, সে বিষয়ে সকলকে সচেতন থাকতে হবে। সরকার মাঠ প্রশাসনকে সাথে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব জাকিয়া সুলতানা, এফবিসিসিআই এর প্রেসিডেন্ট মো. জসিম উদ্দিন, কনজুমারস এসোসিয়েশন অভ্ বাংলাদেশ এর সভাপতি গোলাম রহমান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক এ এইচ এম সফিকুজ্জামান।