ভুয়া চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও সার্জন সঞ্জয় কুমার নাথকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-৭ 

143
ভুয়া চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও সার্জন সঞ্জয় কুমার নাথকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-৭ 
ভুয়া চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও সার্জন সঞ্জয় কুমার নাথকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-৭ 

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : ভুয়া নাম ডিগ্রীধারী চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও সার্জন সঞ্জয় কুমার নাথ নামের এক প্রতারক ডাক্তার’কে আটক করেছে র‌্যাব-৭। জানা যায়, সঞ্জয় কুমার নাথ চট্টগ্রামে বিভিন্ন জায়গায় ১৬বছর ধরে চিকিৎসক হিসাবে মানুষের সাথে এই প্রতারণা করে আসছেন।সে দীর্ঘদিন যাবত ভুয়া এমবিবিএস,কনসালটেন্ট ও সার্জন  সেজে নিরীহ রোগীদের অস্ত্রোপচারসহ বিভিন্ন জটিল রোগের ভূয়া চিকিৎসা প্রদান করে আসছে।

সরলমনা রোগীদের নিকট থেকে প্রতারণামূলক ভাবে অবৈধ অর্থ আত্মসাৎ করে আসছে।সে মূলত এসএসসি পাশ কিন্তু সে লিখেছেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন,প্রফেসর সঞ্জয় কুমার নাথ।ডিগ্রী লিখেছেন এমবিবিএস, পিজিটি(চক্ষু),এমডি।এই পরিচয়ে সে বহদ্দারহাট চক্ষু হাসপাতাল ও মর্ডাণ ডায়াগনষ্টিক সেন্টার” নামধারী দুটি প্রতিষ্ঠান খুলে এই কার্যক্রম চালাচ্ছিলেন।

র‍্যাব-৭ সুত্রে জানায়, জনৈক ব্যক্তি চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানাধীন বদ্দারহাট মোড়স্থ পুলিশ বক্সের পিছনে হক ম্যানসন এর নিচতলায় “মর্ডাণ ডায়াগনষ্টিক সেন্টার” নামধারী একটি প্রতিষ্ঠান খুলে চিকিৎসার নামে নিরীহ রোগীদের সাথে প্রতারণা করে আসছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৬ জুন ২০২২ ইং তারিখ আনুমানিক ৮টা ৪০মিনিটে  র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এর একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করে এই ভুয়া ডাক্তার কে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী হলেন জহরলাল নাথের ছেলে সঞ্জয় কুমার নাথ (৪৮), চিকনদন্ডি, থানা- হাটহাজারী, জেলা- চট্টগ্রাম।বর্তমান তিনি চান্দগাও থানাধীন বহদ্দারহাট এলাকায় বসবাস করেন।

উল্লেখ্য যে,পূর্বেও তাকে এইরকম কর্মকান্ড হতে বিরত থাকার জন্য রাঙ্গুনিয়া উপজেলার র্নিবাহীর ম্যাজিষ্ট্রেট কর্তৃক সর্তক করা হলেও সে বার বার স্থান পরির্বতন করে ১৬ বছর ধরে  ঘৃন্যতম একই ব্যবসা পরিচালনা করে রোগীদের সাথে প্রতারনা করে আসছেন। গ্রেফতারকৃত আসামীকে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।