বশেমুরবিপ্রবির সকল একাডেমিক কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা 

94
বশেমুরবিপ্রবির সকল একাডেমিক কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা 
বশেমুরবিপ্রবির সকল একাডেমিক কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা 

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) সকল একাডেমিক কার্যক্রম থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিরত থাকার ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সংগঠন ” বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি”।

আপগ্রেডেশন এর বিষয়সহ বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষকদের সাথে উপাচার্যের আলোচনা ফলপ্রসূ না হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষক সমিতি।

বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মোঃ কামরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক ড. আবু সালেহ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য  জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, “গত ৩১ মে ২০২২ তারিখ সকাল ১০.৩০ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ক্লাবে শিক্ষক সমিতির আয়োজনে একটি সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় বিস্তারিত আলোচনা শেষে সর্বসম্মতভাবে কিছু সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। উক্ত সিদ্ধান্তসমূহের মধ্যে কিছু সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন্ন রিজেন্ট বোর্ডে অনুমোদনের সাথে সম্পর্কিত। সিদ্ধান্ত সমূহ হলঃ

১. ইউজিসি কর্তৃক প্রেরিত ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নয়নের যুগোপযোগী নীতিমালা প্রণয়নের ক্ষেত্রে ন্যূনতম যোগ্যতা নির্ধারণের নির্দেশিকা’ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের স্বার্থপরিপন্থী হওয়ায় হুবহু বিশ্ববিদ্যালয়ের রিজেন্ট বোর্ডে অনুমোদনের লক্ষ্যে এজেন্ডাভুক্ত না করা। শিক্ষকদের মাধ্যমে একটি কমিটি করে ইউজিসির নির্দেশিকার আলোকে শিক্ষকদের জন্য একটি ভারসাম্যমূলক ও সামঞ্জস্যপূর্ণ নীতিমালা তৈরি করার ব্যাপারে উদ্যোগ গ্রহণ করা। ২. পারিতোষিক এর হার পুন:নির্ধারণ বিষয়ক কমিটি তাদের দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের হার পর্যালোচনা করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

বিশ্ববিদ্যালয়ের পারিতোষিক পুনঃনির্ধারনের ক্ষেত্রে যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, অর্থ

কমিটির অনুমোদন সাপেক্ষে আসন্ন রিজেন্ট বোর্ডে পুনঃর্নির্ধারিত পারিতোষিক হারের

বিষয়টি এজেন্ডাভুক্ত করা।

৩. উচ্চতর পদে আবেদনকৃত যে সকল প্রার্থী আপগ্রেডেশনের যোগ্যতা অর্জন করেছেন, তাদের বোর্ডগুলো সম্পন্ন করে রিজেন্ট বোর্ডের এজেন্ডাভুক্ত করা।”

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়,”উপরোক্ত দাবির প্রেক্ষিতে শিক্ষক সমিতি মাননীয় উপাচার্যের সাথে আলোচনায় বসে। উক্ত আলোচনা ফলপ্রসু না হওয়ায় শিক্ষক সমিতি উপরোক্ত দাবিসমূহ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ১ জুন, ২০২২ তারিখ বিকাল ৫.৩০ মিনিটে একটি জরুরী সভায় মিলিত হয়। এবং উপরোক্ত দাবিসমূহ বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আগামীকাল অর্থাৎ ২ জুন, ২০২২ তারিখ থেকে সকল ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম থেকে বিরত থাকবে বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।”