বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাগৈতিহাসিক যুগের দুষ্প্রাপ্য জীবাশ্ম হস্তান্তর

105
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাগৈতিহাসিক যুগের দুষ্প্রাপ্য জীবাশ্ম হস্তান্তর
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাগৈতিহাসিক যুগের দুষ্প্রাপ্য জীবাশ্ম হস্তান্তর

প্রবাসীর ব্যক্তি উদ্যোগে সংগৃহীত প্রাগৈতিহাসিক যুগের দুষ্প্রাপ্য জীবাশ্ম হস্তান্তর করা হলো দক্ষিণবঙ্গের সেরা বিদ্যাপীঠ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে। বিরল জীবাশ্ম সংগ্রহের নেপথ্যের গল্প মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে শুনলেন অনুষ্ঠানের অতিথি ও আগত শিক্ষার্থীরা।

২১ জুলাই সকাল ১০টায় বরিশাল বিশ^বিদ্যালয়ের জীবনানন্দ দাশ কনফারেন্স কমপ্লেক্সে আয়োজন করা হয় এমন একটি আনন্দমুখর অনুষ্ঠানের। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বরিশাল বিশ^বিদ্যালয়ের ট্রেজারার, বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়া। সভাপতিত্ব করেন ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান সুখেন গোস্বামী। ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়ার হাতে প্রাগৈতিহাসিক যুগের জীবাশ্ম হস্তান্তর করেন অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ও সংগ্রাহক কানাডার ভ্যাঙ্কুভারের আইটি বিশেষজ্ঞ জুবায়ের বিন সরোয়ার ও তাঁর বাবা গোলাম সরোয়ার।

প্রাগৈতিহাসিক যুগের জীবাশ্ম হস্তান্তর ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, ‘জুবায়ের বিন সরোয়ার প্রাগৈতিহাসিক যুগের দুস্প্রাপ্য জীবাশ্ম সংগ্রহ করে সুদূর কানাডা থেকে বাংলাদেশে বহন করে এনেছেন। দেশে আসার সময় অনেকে চকলেটসহ নানা উপহার নিয়ে আসেন, তিনি নিয়ে এসেছেন ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান জীবাশ্ম, যেগুলো বাংলাদেশে বিরল ও দুঃসাধ্য। ভালোবাসা ও প্রবল ইচ্ছাশক্তি না থাকলে এটা সম্ভব হতো না। বরিশাল বিশ^বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে তাঁকে সম্মানিত করতে পেরে আমরা আনন্দিত।’

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর উৎপত্তি, ইতিহাস, ভূমণ্ডল, প্রাগৈতিহাসিক যুগের উদ্ভিদ ও প্রাণীর ধ্বংসাবশেষ বা ফসিল সম্পর্কে তোমরা বেশি বেশি জানার চেষ্টা করবে, শেখার চেষ্টা করবে। তোমাদের জন্য আজ যে অমূল্য সম্পদ কানাডা থেকে বহন করে আনা হলো, এটি থেকে তোমরা হাতে-কলমে জ্ঞানার্জনের চেষ্টা করবে।’

অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়া আরও বলেন, ‘আমি ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের অধ্যাপক ও সাবেক চেয়ারম্যান। সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের প্রভোস্ট ছিলাম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে চার বছরের জন্য বরিশাল বিশ^বিদ্যালয়ে নিয়োগ দিয়েছেন। বরিশাল বিশ^বিদ্যালয়কে দেশসেরা বিদ্যাপীঠে পরিণত করার লক্ষ্য নিয়ে আমি কাজ করে যাচ্ছি। বরিশাল বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আজ গুগলে পৌঁছে গেছে; বিসিএস, জুডিশিয়ারি, পুলিশ-প্রশাসন, ব্যাংকসহ বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষায় মেধার স্বাক্ষর রাখছে। উন্নত দেশের নামকরা বিশ^বিদ্যালয়ে স্কলারশিপ নিয়ে উচ্চশিক্ষার সুযোগ পাচ্ছে। বরিশাল বিশ^বিদ্যালয় সমস্ত বাধা অতিক্রম করে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাবে, বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠে পরিণত হবে।’

ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগ আয়োজিত উক্ত অনুষ্ঠানে শেরে বাংলা হলের প্রভোস্ট আবু জাফর মিয়া, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের প্রভোস্ট তাসনুভা হাবিব জিসান, বিশ^বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।