বন্ধুর বোনকে রক্ত দিয়ে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল শুভর

127
বন্ধুর বোনকে রক্ত দিয়ে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল শুভর
বন্ধুর বোনকে রক্ত দিয়ে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল শুভর

বন্ধুর ছোট বোনকে রক্ত দিয়ে বাঁচাতে গিয়ে নিজের প্রাণ হারালেন শাহরিয়ার শুভ (২৭)। গত ২২ জুন রাত টার দিকে সোহরাওর্দী হাসাপালে রক্ত দেওয়ার পর অসুস্থ হয়ে পড়লে ঢাকা মেডিকেলে রাত ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

শাহরিয়ার শুভ মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার জামির্ত্তা ইউনিয়নের হাতনী (পশ্চিম পাড়া) গ্রামের সৌদি প্রবাসী গোলাম মওলা রিপনের ছেলে। সে সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের শিক্ষার্থী এবং দুই ভাইয়ের মধ্যে শুভ বড়। সে ফ্রিল্যান্সিং পেশার সাথে যুক্ত ছিলেন।

নিহত শাহরিয়ারের চাচা মোঃ সাদিক জানান, বুধবার (২২ জুন) রাত ৮টার দিকে শাহরিয়ার তার বন্ধু রাকিব হোসেনের ছোট বোন তানজিলকে (১৬) রক্ত দিতে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে যায়। রক্ত দেওয়ার পর সে হাসপাতালের ২য় তলায় সিঁড়ির পাশে বসেছিল। এরই মধ্যে তাকে রেখে রাকিব ৫ তলায় রোগীর কাছে যান। সেখান থেকে এসেই রাকিব জানতে পারেন শুভ মাথা ঘুরে সিঁড়ির পাশ দিয়ে ভবনের নিচে পড়ে গেছে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে জরুরি বিভাগে নিয়ে যান।

তবে সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেলে পাঠিয়ে দেন। মুমূর্ষু অবস্থায় সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক রাত ১০টায় মৃত ঘোষণা করেন। শুভর মৃত্যুর খবরে তার এলাকা ও নিজ পরিবারে নেমে আসে শোকের ছায়া।

ভোক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না থাকায় ময়না তদন্ত ছাড়াই বৃহস্পতিবার (২৩জুন) সকাল ১১ টায় তার লাশ নিজ গ্রাম হাতনী কবরস্থানে জানাজা নামাজ শেষে দাফন করা হয়।