বঙ্গবন্ধুর খুনি রাশেদ চৌধুরীর প্রত্যর্পণ ও র‌্যাবের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের অনুরোধ

112
খুনি রাশেদ চৌধুরীর প্রত্যর্পণ ও র‌্যাবের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের অনুরোধ
খুনি রাশেদ চৌধুরীর প্রত্যর্পণ ও র‌্যাবের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের অনুরোধ

ওয়াশিংটনের ক্যাপিটল হিলে সিনেটর ও কংগ্রেসম্যানের কার্যালয়ে বৈঠকে অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির প্রতিনিধি দল। এসময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনি রাশেদ চৌধুরীর প্রত্যর্পণ এবং র‌্যাবের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের অনুরোধ জানানো হয় প্রতিনিধি দলের পক্ষ থেকে।

বুধবার, ১৮ মে মুহাম্মদ ফারুক খান এমপির নেতৃত্বে চার সদস্যবিশিষ্ট প্রতিনিধিদল এই বৈঠক করে। প্রতিনিধিদলের বাকি তিন সদস্য হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অংশ নেন নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, কাজী নাবিল আহমেদ এমপি ও নাহিম রাজ্জাক এমপি। বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ সহিদুল ইসলাম এবং দূতাবাসের কর্মকর্তারা।

বৈঠকে প্রতিনিধি দল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি রাশেদ চৌধুরীকে প্রত্যর্পণের জন্য বাংলাদেশের অনুরোধ পুনর্ব্যক্ত করে। তারা র‌্যাবের উপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রণেতাদের সমর্থনও কামনা করেন l তারা বলেন, র‌্যাব চরমপন্থা, সন্ত্রাসবাদ এবং মাদক ও মানব পাচারসহ সীমান্ত অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অসাধারণ অবদান রাখছে।

এসময় মার্কিন সিনেটর টেড ক্রুজ ও কংগ্রেসম্যান স্টিভ শ্যাবোট বাংলাদেশ এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও বেশি জোরদারের আগ্রহ প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া ১০ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে মার্কিন সাহায্যের কথা উল্লেখ করে রোহিঙ্গাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিরাপদ ও স্বেচ্ছায় প্রত্যাবর্তন নিশ্চিত করতে মিয়ানমারকে সম্ভাব্য সব উপায়ে রাজি করাতে মার্কিন আইনপ্রণেতাদের অনুরোধ জানায় প্রতিনিধি দল। বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় প্রদানের জন্য বাংলাদেশের উদারতার প্রশংসা করেন মার্কিন আইনপ্রণেতারা। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে চেষ্টা চালিয়ে যাবেন বলেও আশ্বাস দেন তারা।

বাংলাদেশকে ৬৪ মিলিয়ন ডোজ করোনা টিকা অনুদানের জন্য মার্কিন সরকারের প্রশংসা করে সংসদীয় প্রতিনিধিদল।

ব্যবসাবান্ধব বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে মার্কিন বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবান যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রণেতাদের কাছে তুলে ধরে সংসদীয় প্রতিনিধিদল।