Home খবর সারা বাংলা ফেনীতে বাসের চাপায় মাদ্রাসা ছাত্রী ও অটোরিক্সা চালক নিহত

ফেনীতে বাসের চাপায় মাদ্রাসা ছাত্রী ও অটোরিক্সা চালক নিহত

ফেনীতে বাসের চাপায় মাদ্রাসা ছাত্রী ও অটোরিক্সা চালক নিহত
ফেনীতে বাসের চাপায় মাদ্রাসা ছাত্রী ও অটোরিক্সা চালক নিহত

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনীতে একটি দ্রুতগতির বাসের চাকা ফেটে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিপরীত দিক থেকে আসা অপর একটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সাকে চাপা দেয়। এতে অটোরিক্সা চালক ও একজন মাদ্রাসা ছাত্রী নিহত হয়েছে।

 গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের দুইজনকে  ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পর অটোরিক্সা চালক মারা যায় এবং  চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের সময় পথিমধ্যে সীতাকুণ্ড এলাকায় ওই ছাত্রীটিও মারা গেছে। নিহত চালকের নাম মো. নুরুজ্জামান (৪২)।

তিনি ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের উত্তর ধলিয়া (বাগেরহাট) এলাকার আবুল কালামের ছেলে এবং একমাত্র যাত্রী উম্মে হাবিবা শারমিন (১৩) স্থানীয় গোবিন্দপুর মহিলা মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ও একই গ্রামের মিজানুর রহমানের মেয়ে। ওই ছাত্রীকে বাড়ী থেকে মাদ্রাসায় পৌঁছাতে যাওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফেনী-সোনাগাজী আঞ্চলিক সড়কের ফেনী সদর উপজেলার গোবিন্দপুর চালতা তলা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফেনী সদর উপজেলার কালিদহ ইউনিয়নের গোবিন্দপুর মহিলা মাদ্রাসার একজন ছাত্রী বাড়ী থেকে অটোরিক্সা যোগে  মাদ্রাসায় যাচ্ছিল। এ সময় ফেনী-সোনাগাজী আঞ্চলিক সড়কের গোবিন্দপুর চালতা তলা নামক স্থান হয়ে সোনাগাজীর কাজিরহাট গামী একটি দ্রুতগামী বাস যাচ্ছিল। হঠাৎ প্রচন্ড শব্দে বাসের সামনের একটি চাকা ফেটে যায়।

এতে দ্রুতগতির বাসটি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে সামনে থাকা একটি যাত্রীবাহি সিএনজি চালিত অটোরিক্সাকে চাপা দেয়। এতে অটোরিক্সাটি দুমড়ে মুচড়ে যায় এবং অটোরিক্সার চালক ও একমাত্র যাত্রী মারাত্মক ভাবে আহত হয়। তারা অটোরিক্সার ভেতরেই আটক পড়েন। খবর পেয়ে ফেনী থেকে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের টিম দ্রুত দুর্ঘটনাস্থলে পৌছ হয়। গুরুতর আহত দুইজনকে উদ্ধার করে ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে যায়।

তাদেরকে ভর্তির পরই অটোরিক্সা চালক নুরুজ্জামান মারা যায়। আহত মাদ্রাসা ছাত্রীর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করার সময় পথিমধ্যে সীতাকুণ্ড এলাকায় মারা গেছে । সে ফেনী সদর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের মিজানুর রহমানের মেয়ে ও গোবিন্দপুর মহিলা মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মো. ইকবাল হোসেন ভূঁঞা দুর্ঘটনায় আহত একজনের মৃত্যু ও একজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের সত্যতা নিশ্চিত করেন। 

ফেনী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন  দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন।  তিনি জানান, অটোরিক্সা চালকের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালে মর্গে রাখা হয়েছে। মাদ্রাসা ছাত্রীর লাশও  মর্গে পৌঁছাতে বলা হয়েছে । 

Exit mobile version