পারাবত এক্সপ্রেসে অগ্নিকান্ডের পর ঢাকা-সিলেট রেলপথ চালু হয়েছে (ভিডিও)

143

শ্রীমঙ্গলে ঢাকা থেকে সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেসের ট্রেনের তিনটি বগিতে আগুন লাগার ঘটনায় ঢাকা-সিলেট রুট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর আবার তা খুলে দেওয়া হয়েছে।

ট্রেনে থাকা যাত্রীরা জানিয়েছেন, অল্প সময়ের মধ্যে তিনটি বগিতে আগুন ছড়িয়ে গেলেও যাত্রীরা নিরাপদে ট্রেন থেকে নামতে পেরেছেন। তবে হুড়োহুড়ি করে ট্রেন থেকে নামতে গিয়ে অনেক যাত্রী হাতে-পায়ে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন।

ঘটনার বর্ণণা দিয়ে ট্রেনের এসি কেবিনের যাত্রী সৌরভ চৌধুরী বলেন, আমি পত্রিকা পড়ছিলাম। হঠাৎ প্রচন্ড তাপ অনুভূত হওয়ায় দেখার জন্য দরজা খুলি। সাথে সাথে যাত্রীদের চিৎকার-চেঁচামেচি শুনতে পাই। দৌড়ে কার আগে কে নামবে প্রতিযোগিতা শুরু হয়। আমিও যাত্রীদের ভিড়ে থেকে নামতে গিয়ে দরজা থেকে পরে পায়ে প্রচন্ড ব্যাথা পাই। তবে আমার দেখা যাত্রীদের কেউ বড় ধরনের কোনো ক্ষতির মুখে পড়েনি। কিন্তু ভয়ে দৌড়ে প্রতিযোগিতা করে নামতে গিয়ে অনেক মানুষ হাতে-পায়ে আঘাত পেয়েছেন। মহিলা যাত্রীদের বেশিরভাগই প্রচন্ড আঘাত পেয়েছেন দ্রুত নামতে গিয়ে।

ট্রেনর আরেক যাত্রী শারমিন আক্তার নামের বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া এক ছাত্রী বলেন, বন্ধুদের সাথে জাফলং বেড়াতে সিলেট যাচ্ছিলাম। প্রথমে একটি বগির নিচে আগুন ধরলে চালক ট্রেনটি থামিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। পরে স্থানীয়রাও আগুন নেভাতে এগিয়ে আসেন। কিন্তু আগুন দাউ দাউ করে ছড়িয়ে পড়ে।

শনিবার (১১ জুন) দুপুর পৌনে ১টার দিকে কমলগঞ্জের শমসেরনগরের বিমানঘাঁটির পাশে পৌঁছালে ট্রেনটির এসি বগিতে আগুন লাগে। ট্রেনটি ঢাকা থেকে সিলেটের দিকে যাচ্ছিল।

আন্তঃনগর পারাবত এক্সপ্রেসের যাত্রী এইচজেডএম স্বপন বলেন, তিনটি বগি আগুনে পুড়েছে। তবে যাত্রীরা সবাই নিরাপদে নামতে পেরেছেন। ফায়ার সার্ভিস আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছে। ট্রেনটির এসি বগিতে আগুনের সূত্রপাত হয়। হঠাৎ বগিতে ধোঁয়া ছড়িয়ে পরে। পরে আমরা দেখতে পাই, আগুন ছড়িয়ে পড়ছে। টিটিকে বিষয়টি জানানো হলে তিনি ট্রেন থামানোর উদ্যোগ নেন।

জানা গেছে, আগুনে পুড়ে যাওয়া তিনটি বগিকে সরিয়ে ফেলার পর রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে বলে জানিয়েছেন শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার সাখাওয়াত হোসেন।

এ প্রসঙ্গে স্টেশন মাস্টার সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ঢাকা-সিলেট রেল যোগাযোগ সাময়িকভাবে বন্ধ ছিল। বর্তমানে স্বাভাবিক আছে।

শ্রীমঙ্গল ফায়ার স্টেশনের ফায়ার ফাইটার হাবিদুর রহমান বলেন, ট্রেনে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে আমাদের তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নেভায়। ধারণা করা হচ্ছে, এসির কোনো ত্রুটি থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।