পণ্য মজুত ও স্বাভাবিক ন্যায্যমূল্যের বেশি নিলেই ব্যবস্থা : বাণিজ্যমন্ত্রী

134

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বাজারে প্রতিটি পণ্যের মজুত চাহিদার চেয়ে অনেক বেশি। ভোজ্য তেল, ডাল, চিনি, ছোলা, মসলাসহ সকল পণ্যের সরবরাহ স্বাভাবিক রয়েছে, ঘাটতির কোনো সম্ভাবনা নেই, মূল্যও স্থিতিশীল রয়েছে। সয়াবিন তেল নতুন করে কমিয়ে নির্ধারিত মূল্যেই বিক্রয় হচ্ছে। সরকার যে সকল নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের উপর থেকে ট্যাক্স এবং ভ্যাট কমিয়েছে, তার সুফল ভোক্তারা পাচ্ছেন। বাজার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য টাস্কফোর্স গুরুত্বের সাথে কাজ করছে। বাজার অভিযান জোরদার করা হয়েছে,পণ্য মজুত ও স্বাভাবিক ন্যায্যমূল্যের বেশি নিলেই ব্যবস্থানেয়া হচ্ছে। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ব্যবসায়ীরাও এখন অনেকটা সতর্ক হয়েছেন, পণ্যের মূল্য তালিকা দোকানে দেখা যাচ্ছে। ভোক্তার সচেতনতাও বেড়েছে। পবিত্র রমজান মাসে ব্যবসায়ীদেরও আন্তরিক হতে হবে, সততার সাথে ব্যবসা করতে হবে। দেশের প্রচার মাধ্যমগুলোরও এ বিষয়ে দায়িত্বশীল ভূমিকা আশা করছি। সম্মিলিতভাবে সততার সাথে চেষ্টা করলে চলমান অস্থির বিশ্ব পরিস্থিতিতেও আমাদের বাজার স্বাভাবিক থাকবে।

মন্ত্রী গতকাল ঢাকার কাওরান বাজারের কিচেন মার্কেট আকস্মিকভাবে পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশের নিম্নআয়ের এক কোটি পরিবারকে বিশেষ কার্ড দিয়ে টিসিবি’র মাধ্যমে ভর্তুকি মূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য প্রদান করা হচ্ছে। এতে দেশের প্রায় পাঁচ কোটি মানুষ উপকৃত হবেন। এর প্রথম কিস্তির পণ্য বিক্রয় শেষ হয়েছে, দ্বিতীয় কিস্তির পণ্য নির্ধারিত কার্ড হোল্ডারদের কাছে মধ্য রমজানে বিক্রয় করা হবে। এ ক্ষেত্রে কোনো ধরনের অনিয়ম প্রমাণিত হলে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এসময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (আইআইটি) এ এইচ এম  সফিকুজ্জামানসহ সিনিয়র কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।