পঞ্চগড়ে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-ছেলেসহ নিহত ৩

148

মুহম্মদ তরিকুল ইসলাম, পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড় জেলাধীন সদর উপজেলা ও তেঁতুলিয়া উপজেলায় পৃথক স্থানে ট্রাক্টরের ধাক্কায় বাবা-ছেলেসহ ৩ জন নিহত হয়েছেন।

রোববার (১০ এপ্রিল ২০২২) দুপুরে পঞ্চগড় সদর উপজেলার চাকলাহাট ইউনিয়নের নতুনবন্দর এলাকা ও জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান ইউনিয়নের কৈমারী এলাকায় পৃথক দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাড়িভাসা ইউনিয়নের বড়বাড়ি এলাকার আব্দুল আজিজ (৫৫), তার ছেলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্য আরিফ হোসেন (২৪) ও তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান ইউনিয়নের সোনাকান্দর এলাকার দেবারুর ছেলে জিয়া (৪২)।

স্থানীয়রা জানায়, দুপুরে হঠাৎ ঝড় বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির সময় আরিফ তার বাবাসহ চাকলাহাট থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ি যাওয়ার সময় নতুনবন্দর নামক এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক্টরের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই আরিফ নিহত হন এবং আরিফের বাবা গুরুতর আহত হন। বাবা আবদুল আজিজকে উদ্ধার করে দ্রুত রংপুরে নেয়া হলে পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আরিফ বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের চাকরি করতেন। ছুটিতে বাড়িতে এসে এই দুর্ঘটনা কবলিত হন তিনি।

অপরদিকে, জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার কৈমারী এলাকায় একটি ট্রাক থেকে মুরগির লিটারের (বিষ্ঠা) বস্তা আনলোড করার সময় পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন জিয়া। এসময় একটি বস্তা তার ওপর পড়ে যায়। তখন পেছন থেকে একটি ট্রাক্টর তাকে চাপা দেয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা দ্রুত উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল নিয়ে গেলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রংপুরে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তবে ঘটনার পরপরই ঘাতক ট্রাক্টর পালিয়ে যায়।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞা ও তেঁতুলিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সায়েম মিয়া পৃথক দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
পঞ্চগড়ে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-ছেলেসহ নিহত ৩

মুহম্মদ তরিকুল ইসলাম, পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড় জেলাধীন সদর উপজেলা ও তেঁতুলিয়া উপজেলায় পৃথক স্থানে ট্রাক্টরের ধাক্কায় বাবা-ছেলেসহ ৩ জন নিহত হয়েছেন।

রোববার (১০ এপ্রিল ২০২২) দুপুরে পঞ্চগড় সদর উপজেলার চাকলাহাট ইউনিয়নের নতুনবন্দর এলাকা ও জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান ইউনিয়নের কৈমারী এলাকায় পৃথক দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাড়িভাসা ইউনিয়নের বড়বাড়ি এলাকার আব্দুল আজিজ (৫৫), তার ছেলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্য আরিফ হোসেন (২৪) ও তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান ইউনিয়নের সোনাকান্দর এলাকার দেবারুর ছেলে জিয়া (৪২)।

স্থানীয়রা জানায়, দুপুরে হঠাৎ ঝড় বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির সময় আরিফ তার বাবাসহ চাকলাহাট থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ি যাওয়ার সময় নতুনবন্দর নামক এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক্টরের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই আরিফ নিহত হন এবং আরিফের বাবা গুরুতর আহত হন। বাবা আবদুল আজিজকে উদ্ধার করে দ্রুত রংপুরে নেয়া হলে পথিমধ্যে তার মৃত্যু হয়। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আরিফ বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের চাকরি করতেন। ছুটিতে বাড়িতে এসে এই দুর্ঘটনা কবলিত হন তিনি।

অপরদিকে, জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার কৈমারী এলাকায় একটি ট্রাক থেকে মুরগির লিটারের (বিষ্ঠা) বস্তা আনলোড করার সময় পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন জিয়া। এসময় একটি বস্তা তার ওপর পড়ে যায়। তখন পেছন থেকে একটি ট্রাক্টর তাকে চাপা দেয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা দ্রুত উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল নিয়ে গেলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রংপুরে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তবে ঘটনার পরপরই ঘাতক ট্রাক্টর পালিয়ে যায়।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞা ও তেঁতুলিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সায়েম মিয়া পৃথক দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।