নিউমার্কেট সংঘর্ষ : নাহিদকে কুপিয়ে হত্যার ভিডিও দেখে শিউরে উঠবেন আপনিও (ভিডিও)

450

ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সঙ্গে রাজধানীর নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে দুজন নিহত হন। তাদের মধ্যে একজন কুরিয়ার সার্ভিস কর্মী নাহিদ হোসেন। ঘটনার দিন তাকে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে সেই দৃশ্য।

ভিডিওটি দেখে শিউরে না উঠে উপায় নেই। এটি দেখলে মনে প্রশ্ন জাগতে বাধ্য- মানুষ কতটা বর্বর হলে নিরীহ-নিরস্ত্র একজন কুরিয়ার সার্ভিস কর্মীকে এভাবে কুপিয়ে মেরে ফেলতে পারে!

ইতোমধ্যে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে কুরিয়ার সার্ভিস কর্মী নাহিদকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত দুজনকে শনাক্ত করেছে ডিবি পুলিশ। এছাড়া আরাও দুজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ডিবি পুলিশ জানায়, শনাক্ত চারজনের মধ্যে দুজন হত্যাকান্ডের সঙ্গে সরাসরি জড়িত। অন্য দুজন পাশে থেকে হত্যাকান্ডে সহায়তা করেছেন।

হত্যাকান্ডে সরাসরি জড়িত দুজনই ঢাকা কলেজের ছাত্র ও একই হলের বাসিন্দা। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে তাদের একজনের নাম কাইয়ুম বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ডিবি পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী, ঘটনার দিন নাহিদকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপান একাধিক ব্যক্তি। তাদের কারও কারও মাথায় হেলমেট ছিল, আবার হেলমেট ছাড়াও একাধিক ব্যক্তি ছিলেন। তাদের মধ্যে একজনের ছবি দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

ডিবি পুলিশ আরও জানায়, যে ব্যক্তির ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে তার পরিচয় সম্পর্কে এখন পর্যন্ত পুরোপুরি নিশ্চিত হতে পারেনি ডিবি। তবে দুজনকে সন্দেহ করা হচ্ছে যাদের একজন সেই অস্ত্রধারী হলেও হতে পারেন।

আজ থেকে ঠিক সাতদিন আগে গত সোমবার, ১৮ এপ্রিল রাতে নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী ও দোকান কর্মচারীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের ছাত্রদের মারামারি হয়। ইফতারের টেবিল বসানোর জন্য জায়গা দখল করাকে কেন্দ্র করে নিউমার্কেটের দুটি খাবারের দোকানের কর্মীদের বিতণ্ডা থেকে ওই ঘটনার শুরু।

সোমবার রাতের ঘটনার জের ধরে পরদিন মঙ্গলবার সারাদিন নিউমার্কেট এলাকায় ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সঙ্গে নিউমার্কেটের দোকান মালিক, কর্মচারী ও হকারদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত পঞ্চাশজন আহত হন। আহতদের মধ্যে দুজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তাদের একজন কুরিয়ার সার্ভিস কর্মী নাহিদ (১৮)। অন্যজন প্যান্ট দোকান কর্মচারী মো. মুরসালিন (২৪)।