ভাইরাল শিক্ষিকার মৃত্যু নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য (ভিডিও)

894

নাটোরের কলেজ শিক্ষিকা খাইরুন নাহার (৪০) ও তরুণ কলেজ ছাত্র মামুন হোসেন (২২) এর বিয়ের খবরে দেশজুড়ে তোলপাড় ওঠে। অসম বয়সী এই দম্পতির বিয়ের খবর রীতিমতো ভাইরাল হয়ে যায় অনলাইনে। এবার অসম বয়সী এই দম্পতির একজনের অ-স্বা-ভা-বি-ক মৃত্যুর খবরে সারাদেশে আবারও চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

খাইরুন নাহারের ম-র-দে-হ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় আটক করা হয়েছে তার স্বামী মামুন হোসেনকে।

নাটোর শহরের বলারিপাড়া এলাকার একটি ভবনের চার তলায় ভাড়া থাকতেন খাইরুন-মামুন দম্পতি। রোববার, ১৪ আগস্ট আনুমানিক সকাল ৭টায় সেখান থেকে খাইরুনের ম-র-দে-হ উদ্ধার করে পুলিশ।

ঘটনার পর মামুন দাবি করেন, শনিবার সকালে ফজরের নামাজ পড়ে ফিরে এসে তিনি ঘরে ঢোকার জন্য দরজায় ধাক্কা দেন। কিন্ত ভেতর থেকে স্ত্রীর কোনোরকম সাড়া-শব্দ না পেয়ে দরজা ভেঙে ফেলেন। ঘরে ঢুকে খাইরুনকে সিলিং ফ্যানের সাথে গ-লা-য় ও-ড়-না প্যাঁ-চা-নো অবস্থায় ঝু-লে থাকতে দেখেন।

কিন্তু মামুনের বক্তব্যের সঙ্গে বাড়ির দারোয়ানের বক্তব্যের অমিল পাওয়া যায়।

দারোয়ান জানান, মামুন শনিবার রাত ১১টার দিকে বাসায় ঢোকেন। এরপর গভীর রাত আনুমানিক ২টা ৩০ মিনিটে বাসা থেকে বের হন তিনি। এত রাতে মামুন কেন বের হচ্ছেন জানতে চাইলে দারোয়ানকে সে জানায়, ফার্মেসিতে যাচ্ছে ওষুধ কিনে আনতে।

দারোয়ান আরও জানান, গভীর রাতে বাড়ি থেকে বের হওয়ার প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা পরে ভোর ৬টার দিকে মামুন ফিরে আসেন। সিঁড়ি দিয়ে চাতলায় উঠে যান। একটু পরই মামুন দারোয়ানকে ডাক দেন। তিনি (দারোয়ান) চার তলায় গিয়ে খাইরুনের ম-র-দে-হ সিলিং ফ্যান থেকে নামিয়ে ঘরের মেঝেতে শোয়ানো অবস্থায় দেখতে পান।

খাইরুন-মামুন দম্পতি যে বাসায় ভাড়া থাকতেন সেই বাসার অন্যান্য ভাড়াটিয়া এবং স্থানীয়রা জানান, রোববার ভোরে খাইরুনের স্বামী মামুন তাদেরকে জানায়, তার স্ত্রী খায়রুন নাহার শেষ রাতের দিকে নিজের গ-লা-য় ওড়না পেঁ-চি-য়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আ-ত্ম-হ-ত্যা করেছেন। তারা ঘরে ঢুকে খায়রুনের ম-র-দে-হ মেঝেতে শোয়া অবস্থায় দেখতে পেলে তাদের সন্দেহ হয়। তখন তারা মামুনকে বাসার ভেতর আটকে রাখেন। এরপর পুলিশকে খবর দেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাটোর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসিম আহমেদ জানান, প্রকৃত ঘটনা জানার জন্য মামুনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া প্রয়োজন। খাইরুন-মামুন দম্পতির ভাড়া বাসার সামনে অতিরিক্ত মানুষের ভিড়ে বিশৃঙ্খলা তৈরি হওয়ায় মামুনকে সেখানেই প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয় বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।