সংবাদ সংগ্রহ শেষে ফেরার পথে দুর্বৃত্তের হামলায় আহত সাংবাদিক

97
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সংবাদ সংগ্রহ শেষে ফেরার পথে দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন দৈনিক নতুন দিন পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি আব্দুল বাছিত খান।
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সংবাদ সংগ্রহ শেষে ফেরার পথে দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন দৈনিক নতুন দিন পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি আব্দুল বাছিত খান।

এ.এস.কাঁকন, মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সংবাদ সংগ্রহ শেষে মোটরসাইকেলে উপজেলা সদরে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন দৈনিক নতুন দিন পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি আব্দুল বাছিত খান। শনিবার কমলগঞ্জ-মুন্সিবাজার সড়কের উবাহাটা (মান্দারীবন) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়ারদৌস হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। কী কারণে ও কারা হামলা চালিয়েছে তা প্রাথমিকভাবে জানা যায়নি। এ ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুপুরে উবাহাটা এলাকায় একটি মোটরসাইকেল নিয়ে হেলমেট পরা তিন দুর্বৃও তাকে হাত ও পায়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে পালিয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখান থেকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল ও পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। আহত সাংবাদিক বাছিতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে গভীর কোপের দাগ রয়েছে, তার ডান হাত প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন তাঁর সাথে থাকা সাংবাদিকরা। তারা জানান প্রচুর রক্তক্ষরণ হওয়ায় আশঙ্কাজনকভাবে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

ঘটনার সময় আহত সাংবাদিকের সঙ্গে থাকা আমিনুল ইসলাম জানান, আব্দুল বাছিত তাকে নিয়ে রহিমপুরের মৃর্তীঙ্গা চা বাগান থেকে চলমান চা শ্রমিকদের আন্দোলনের সংবাদ সংগ্রহ শেষে মোটরসাইকেলে কমলগঞ্জ উপজেলা সদরে আসছিলেন। তারা কমলগঞ্জ-মুন্সীবাজার সড়কের উবাহাটা (মান্দারীবন) এলাকায় পৌঁছালে মোটরসাইকেলে আসা তিন ব্যক্তি তাদের পথ গতিরোধ করে সাংবাদিক আব্দুল বাছিতকে দা দিয়ে অতর্কিত কোপাতে থাকে। বাছিত দৌড়ে পালাতে চাইলেও দুর্বৃওদের কোপের আঘাতে মাটিতে পড়ে যান। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তিনি তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।