জ্বালানি ছাড়াই ছুটবে ট্রেন

209

‌’টেন চলেছে, ট্রেন চলেছে, ট্রেনের বাড়ি কই?’ বিখ্যাত কবি শামসুর রাহমান ট্রেন নিয়ে চমৎকার এই ছড়ায় ট্রেনের বাড়ি কোথায় জানতে চাইলেও তার উত্তর মেলা ভার। তবে ট্রেনের দুনিয়ায় দারুণ এক আবিষ্কারের কথা ঠিকই জানিয়ে দিয়েছে ইন্টারেস্টিং ইঞ্জিনিয়ারিং নামের একটি ওয়েবসাইট। সেখানে জ্বালানি ছাড়াই ট্রেন চলার মতো বিস্ময়কর খবর জানানো হয়েছে।

একটা সময়ে ট্রেন চলেছে কয়লায়, বাষ্পচালিত ট্রেনের চলও চলে গেছে। এখন সাধারণত জ্বালানি তেল ও বিদ্যুৎ শক্তিতে চলছে ট্রেন। এবার নতুন ধরনের ট্রেন আবিষ্কারের খবর জানা গেলো যে ট্রেন চালাতে কয়লা, বাষ্প বা জ্বালানি তেল কিছুই লাগবে না। এটি বিদ্যুৎ শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ছুটে চলবে ঠিকই, তবে সেই বিদ্যুৎ শক্তি নিজেই উৎপাদন করে নেবে। ট্রেন চলা শুরু করলেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ব্যাটারি চার্জ হতে থাকবে। সেই ব্যাটারি থেকেই প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ শক্তি নিয়ে চলবে ট্রেন।

ইতোমধ্যে অভূতপূর্ব এই ট্রেনের নাম চূড়ান্ত হয়েছে। ইনিফিনিটি ট্রেন নামের বিশেষ এই ট্রেনটিতে চড়ে ভ্রমণ করা যাবে। এজন্য খুব বেশি সময় অপেক্ষায়ও করতে হবে না। সবকিছু ঠিকঠাকমতো এগুলে আগামী আট বছরের মধ্যেই এই ট্রেনের যাত্রা শুরু হবে।

এই ট্রেনের অন্যতম সুবিধা হলো এটি চালাতে যেহেতু জ্বালানি প্রয়োজন হবে না তাই অনেক বেশি সাশ্রয়ী হবে। এছাড়া একেবারেই পরিবেশ দূষণও করবে না ট্রেনটি। জ্বালানি ভরা কিংবা ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত সময় না লাগায় সময়ও বাঁচবে। যেহেতু এই ট্রেন চলার সময় নিজেই ব্যাটারি চার্জ করে নেবে তাই বারবার জ্বালানি ভরার ঝামেলা পোহাতে হবে না।

ইনফিনিটি ট্রেন তৈরি করছে অস্ট্রেলিয়ার লৌহ আকরিক প্রস্তুতকারী কোম্পানি ফোর্টেস্কু ও যুক্তরাজ্যের ব্যাটারি প্রস্তুতকারী কোম্পানি অ্যাডভান্স ইঞ্জিনিয়ারিং। তাদের দাবি, পৃথিবীর বুকে সেরা ট্রেন হতে চলেছে ইনিফিনিটি ট্রেন। এটিই হবে পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী বিদ্যুৎচালিত ট্রেন। পাশাপাশি এটি হবে পৃথিবীর প্রথম ট্রেন যা থেকে একটুও পরিবেশ দূষণ হবে না।