জিয়াউর রহমান বগুড়ার মাটিকে কলুষিত করেছেন : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

107

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, প্রাগৈতিহাসিক কাল থেকে বগুড়া শিক্ষা, শিল্প, সাহিত্য-সংস্কৃতিতে উন্নত ও সমৃদ্ধ। এখানকার সাধারণ মানুষ সংস্কৃতি পরায়ন ও স্বাধীনতা প্রিয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানও এ জেলায় বহুবার এসেছেন। কিন্তু এ জেলার সন্তান খুনি জিয়াউর রহমান জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে বগুড়ার মাটিকে কলুষিত করেছেন।

প্রতিমন্ত্রী  গতকাল  বিকালে বগুড়া জেলার ধুনট উপজেলার শহিদ মিনার (মুজিব) চত্বরে ধুনট থিয়েটার আয়োজিত ধুনট থিয়েটারের তিন যুগ পূর্তি, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের ৪০ বছরপূর্তি ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে তিন দিনব্যাপী নাট্য ও লোক সাংস্কৃতিক উৎসব-২০২২ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

উৎসব উদ্বোধন করেন বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ মোঃ হাবিবর রহমান।

প্রধান অতিথি বলেন, বগুড়ার উন্নয়নের রূপকার জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। তাই এ এলাকার মানুষের উচিত বগুড়ার সাতটি আসন প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেয়া। বগুড়ার আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আপনারা ঐক্যবদ্ধ হয়ে জনপ্রিয় ও যোগ্য জনপ্রতিনিধির পক্ষে কাজ করুন, যাতে তারা মনোনয়ন লাভ করে আগামীতে নির্বাচিত হতে পারেন।

কে এম খালিদ বলেন, সেবা, সংস্কৃতি, শান্তি ও প্রগতির অঙ্গীকার নিয়ে প্রায় তিন যুগ আগে ‘নজরুল সংগীত নিকেতন’ নামে ধুনটে একটি সাংস্কৃতিক সংগঠনের আত্মপ্রকাশ করে। যা পরবর্তীতে ‘ধুনট থিয়েটার’ নামকরণ করা হয়। তিনি বলেন, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের আদর্শ ও লক্ষ্যের প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়ে শিকড়ের সন্ধানে আজ অব্দি পথ চলছে ধুনট থিয়েটার ও এর প্রতিটি নাট্যকর্মী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু ও সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু এবং ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জান্নাতুল ফেরদৌস রূপা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ধুনট থিয়েটার ও ধুনট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি টি আই এম নুরুন্নবী তারিক। শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক তৌফিক হাসান ময়না ও ধুনট পৌরসভার মেয়র এ জি এম বাদশা।

প্রতিমন্ত্রী পরে বগুড়া শহরের অ্যাডওয়ার্ড পার্কের শহিদ টিটু মিলনায়তনে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, বগুড়ার নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের (২০২২-২০২৪) অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।