ছয় দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ ডায়রিয়া

154
আইসিডিডিআর,বি সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরেই হাসপাতালটিতে দৈনিক গড়ে ১২ শতাধিক রোগী ভর্তি হচ্ছেন। প্রতিষ্ঠানটির ৬০ বছরের মধ্যে একদিনে এত বেশি ডায়রিয়া রোগী একসঙ্গে ভর্তির ঘটনা এবারই প্রথম
আইসিডিডিআর, বি হাসপাতালে দৈনিক গড়ে ১২ শতাধিক ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হচ্ছেন। প্রতিষ্ঠানটির ৬০ বছরের মধ্যে একদিনে এত বেশি ডায়রিয়া রোগী একসঙ্গে ভর্তির ঘটনা এবারই প্রথম

গরমের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে। প্রতিদিন ১২ শতাধিক ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হচ্ছেন রাজধানীর মহাখালীতে অবস্থিত আন্তর্জাতিক উদরাময় রোগ গবেষণা কেন্দ্র বাংলাদেশ (আইসিডিডিআর,বি) এ। সেখানে এখন ডায়রিয়া রোগীর উপচেপড়া ভিড়।

আইসিডিডিআর,বি সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরেই হাসপাতালটিতে দৈনিক গড়ে ১২ শতাধিক রোগী ভর্তি হচ্ছেন। প্রতিষ্ঠানটির ৬০ বছরের মধ্যে একদিনে এত বেশি ডায়রিয়া রোগী একসঙ্গে ভর্তির ঘটনা এবারই প্রথম।

বিগত বছরগুলোতে দৈনিক রোগী ভর্তির গড় সংখ্যা ছিল হাজারখানেক। ২০১৮ সালে দৈনিক গড়ে ১ হাজারে মতো রোগী ভর্তি হয়েছিল। ২০০৭ সালে বন্যার সময় ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিলেও সে সময়ও দৈনিক রোগী এক হাজারের বেশি রোগী ভর্থি হয়নি। ভর্তি সংখ্যা ছিল এক হাজারের মধ্যে।

সর্বশেষ গত ২৩ মার্চ হাসপাতালটিতে ভর্থি হয়েছেন ১২৩৩ জন। ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে রাজধানী ও ঢাকার আশপাশের জেলাগুলোর রোগীর সংখ্যাই বেশি। রাজধানীর মিরপুর, মোহাম্মদপুর, যাত্রাবাড়ী, শনির আখড়া, কদমতলী, দক্ষিণখান এলাকা থেকে বেশি রোগী ভর্তি হচ্ছেন হাসপাতালটিতে।

ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক ও পুরুষ রোগীর সংখ্যা বেশি। হাসপাতালের বেডের চেয়ে রোগী বেশি হওয়ায় তাঁবু টানিয়ে ডায়রিয়া রোগীর চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। হাসপাতালে বেডের পাশাপাশি তাঁবুর সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে বলেও জানা গেছে আইসিডিডিআর,বি সূত্রে।