চুক্তিভিত্তিক স্ত্রী ভাড়া দেওয়া হয় গাজীপুরের যে গ্রামে

2295
বাংলাদেশেই গাজীপুরে একটি গ্রামে চুক্তিভিত্তিক স্ত্রী ভাড়া পাওয়া যাচ্ছে। তবে সংসার করার জন্য নয়, শুটিংয়ের জন্য।
বাংলাদেশেই গাজীপুরে একটি গ্রামে চুক্তিভিত্তিক স্ত্রী ভাড়া পাওয়া যাচ্ছে। তবে সংসার করার জন্য নয়, শুটিংয়ের জন্য।

বিদেশে অনেকেই নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য চুক্তিভিত্তিক বিয়ে করেন। এটা পুরনো খবর। নতুন খবর হলো, বিদেশে নয়, বাংলাদেশেই গাজীপুরে একটি গ্রামে চুক্তিভিত্তিক স্ত্রী ভাড়া পাওয়া যাচ্ছে। তবে সংসার করার জন্য নয়, শুটিংয়ের জন্য।

গাজীপুর শহরতলী থেকে কয়েক কিলোমিটারের মধ্যেই ভাদুন গ্রাম। নাটক, সিনেমায় গ্রামের দৃশ্যের শুটিংয়ের জন্য বিখ্যাত হয়ে উঠেছে গ্রামটি। তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে গ্রামটিতে শুটিং করছেন নির্মাতা ও কলা-কুশলীরা। সেখানেই ভাড়ায় পাওয়া যায় চুক্তিভিত্তিক স্ত্রী। শুটিংয়ের প্রয়োজন অনুযায়ী ঘণ্টাভিত্তিক স্ত্রী ভাড়া পাওয়া যায় সেখানে। শুধু তাই নয়, সারাদিনের জন্যও স্ত্রী ভাড়া নেওয়া যায় সেখানে।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভেতরেই ভাদুন গ্রাম অবস্থিত। সেখানে শুধু স্ত্রী নয়, শুটিংয়ের জন্য প্রয়োজন এমন প্রায় সবকিছুই ভাড়া নেওয়া যায়। শুটিংয়ের প্রয়োজনে ঘণ্টাভিত্তিক কিংবা সারাদিনের জন্য শিশু বাচ্চা, নাপিত, কামার, কুমার, কৃষক থেকে শুরু করে গরু, ছাগল, হাঁস, মুরগী ও কিভিন্ন গৃহপালিত পশু, এমনকি ঝাড়ু, দা, বটিসহ সবকিছুই ভাড়া পাওয়া যায় ভাদুন গ্রামে।

প্রায় প্রতিদিনই শুটিং হয় ভাদুন গ্রামে। ভাদুন গ্রামটিতে অসংখ্য শুটিং স্পট গড়ে উঠেছে। অতীতে শুটিংয়ের প্রয়োজনে বিনামূল্যেই সবকিছু দিয়ে দিতেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দৃশ্যপট পাল্টে গেছে। এখন কেবল টাকার বিনিময়েই শুটিংয়ের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন জিনিস ভাড়া দেন তারা।