চিড়া-মুড়ি ভালো লাগে না, একটু ভাতের ব্যবস্থা করে দেন

168
চিড়া-মুড়ি ভালো লাগে না একটু ভাতের ব্যবস্থা করে দেন
চিড়া-মুড়ি ভালো লাগে না একটু ভাতের ব্যবস্থা করে দেন

শেখ রাজীব হাসান, গাজীপুর থেকে : মায়ের নির্দেশে গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মোশিউর রহমান সরকার বাবু ও এলাকার স্থানীয় মুরব্বীদের পরামর্শে সহযোগীদের সাথে নিয়ে সিলেটের ৪নং খলাছরা ইউনিয়নের প্রত্যান্ত অঞ্চলের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতা আসাদ সিকদার।

আসাদ সিকদারের নেতৃত্বে ৪৭ নং ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জহিরুল ইসলাম রুবেলসহ ১০ জনের ১টি প্রতিনিধি দল দীর্ঘ ৭ দিন সিলেটের ৪নং খলাছরা ইউনিয়নের গারপুর হলদির পার, বনতেরাপুর, ইসলামপুর, বরকতপুর, দুবরীর পাড়, আম বাড়ী ও বেওর গ্রামের বিভিন্ন স্কুল, মাদ্রাসা ও এতিমখানায় ঘুরে ঘুরে প্রায় সাত হাজারের অধিক পরিবারের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করেন। রান্না করা খাবারের পাশাপাশি প্রতিটি পরিবার কে প্রয়োজনের যেয়ে অধিক খাবার স্যালাইন ও প্রচুর পরিমাণে পানি বিশুদ্ধকরণ ফিটকিরি দেওয়া হয়। এসময় সেচ্ছাসেবী হিসেবে প্রতিনিধি দলে অংশ নেয় নাঈম, মানিক, রিফাত,রাব্বি, তামিম, সোহান, হাসান ও নয়ন। এই কার্যক্রম স্ফল করতে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন রাকিব, হাসান, অনু, মিরাজ ও রিয়াজসহ অনেকে।

ছাত্রলীগ নেতা আসাদ সিকদার বলেন, আমার মায়ের নির্দেশে গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মোশিউর রহমান সরকার বাবু ও এলাকার স্থানীয় মুরব্বীদের পরামর্শে সহযোগীদের সাথে নিয়ে সিলেটের ৪নং খলাছরা ইউনিয়নের প্রত্যান্ত অঞ্চলের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিয়েছি। আমি চেষ্টা করেছি যে সকল পরিবার এখনো কোন প্রকার আর্থিক ও ত্রাণ সহায়তা পায়নি সেই সকল প্রত্যান্ত গ্রামের মানুষের পাশে থাকতে। আমি ও আমার সেচ্ছাসেবী দল সাধ্যমত সহযোগীতা করার চেষ্টা করেছি। তবে অনেকে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে বিভিন্ন জেলায় যান। আপনাদের কাছে অনুরোধ রইলো আপনারা এলাকাগুলো ঘুরে প্রথমে ঘুরে দেখবেন। হাজার হাজার পরিবার রয়েছে যারা দীর্ঘদিন যাবত চিড়া মুড়ি খেয়ে দিন কাটাচ্ছে তাদের এগুলো আর ভালো লাগে না। অনেকে আমার কাছে বলেছে ভাই একটু ভাতের ব্যবস্থা করে দেন। তাদের চোখে জল ছিলো। তাই আবারো অনুরোধ করবো আপনারা যারা বৃত্তবান, আপনারা এই অসহায় মানুষদের দিকে সুদৃষ্টি দিবেন।