ঘুষের প্রতিবাদ করায় প্রকৌশলীর মারমুখি আচরণ

81

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় সহকারী মাঠ প্রকৌশলী এ.এম হাদিউজ্জামান আশিককে মারধরের ঘটনায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন সিন্দুর্না ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সেলিম। সংবাদ সম্মেলনে শহিদুল ইসলাম সেলিম দাবী করেন ঘুষের প্রতিবাদ করায় তার সাথে মারমুখি আচারণ করেন ওই সহকারী মাঠ প্রকৌশলী।

বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) দুপুরে হাতীবান্ধা প্রেসক্লাব কার্যালয়ে উক্ত সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে শহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, আমি এলজিইডি’র একজন ঠিকাদার। আমার কাজের বিলের জন্য এলজিইডি অফিসে নিয়মিত যাই। গত ২০ মার্চ এলজিইডি অফিসে গেলে এক সহকারী প্রকৌশলী বিলের বিনিময় ঘুষ দাবী করেন। এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে উক্ত সহকারী মাঠ প্রকৌশলী এ.এম হাদিউজ্জামান আশিক আমার উপর মারমুখি আচারণ করেন। উক্ত সহকারী মাঠ প্রকৌশলী আশিক বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভুল স্বীকার করলে উপজেলা চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় মিমাংশা হয়। যেখানে উপজেলা প্রকৌশলীসহ এলজিইডি অফিসের সবাই উপস্থিত ছিলেন। পরে আমি উপজেলা পরিষদ থেকে উপজেলা গেটে আসলে ওই সহকারী মাঠ প্রকৌশলী আমাকে অনৈতিক প্রস্তাব দেয়।

আমি তাৎক্ষনিক আবারও প্রতিবাদ করি এবং বিষয়টি উপজেলা প্রকৌশলীকে অবগত করি। কিন্তু পরের দিন আমাকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হয়রানী করতে স্থানীয় থানায় আমার বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা সাধারণ ডায়েরী করেন ওই সহকারী মাঠ প্রকৌশলী। ওই সূত্র ধরে গত ২২ ও ২৩ মার্চ কয়েকটি গনমাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত সংবাদ প্রকাশ করে। উক্ত সংবাদের সঙ্গে বাস্তবতার কোন মিল নেই। আমাকে হয়রানী করতেই এমন সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। আমি উক্ত সংবাদের প্রতিবাদসহ পুরো ঘটনা তদন্ত করে এলজিইডির সহকারী মাঠ প্রকৌশলী এ.এম হাদিউজ্জামান আশিকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এলজিইডির উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ করছি।