খাগড়াছড়িতে নাগরিক মঞ্চের মানববন্ধন

88

বিপ্লব তালুকদার, খাগড়াছড়ি : নড়াইলে সংঘটিত সাম্প্রদায়িক হামলা, ধর্মীয় উপাসনালয় ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে নাগরিক মঞ্চ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।

শনিবার (২২ জুলাই) সকাল ১১টায় খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাবের সামনে খাগড়াছড়ি নাগরিক মঞ্চের উদ্যোগে ঘণ্টাব্যাপি এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে আইনজীবী, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, উন্নয়নসংস্থার কর্মী, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মী, নারী উন্নয়ন সংগঠনের সদস্য, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও পথচারীসহ দুই শতাধিক মানুষ অংশ নেয়।

এই মানববন্ধনে সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর বোধিসত্ত্ব দেওয়ান এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাবের সভাপতি জীতেন বড়ুরা, সাংবাদিক মো: দাউদ ইসলাম, জেলা দুনীর্তি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি সুর্দশন দত্ত, সমাজ কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সজল বরণ সেন, লক্ষী নারায়ণ মন্দিরে সাধারণ সম্পাদক নির্মল দেব, নারী উদ্যোক্তা শাফলা দেবী ত্রিপুরা ও সাংবাদিক অপু দত্তসহ আরও অনেকে।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে সব ধর্ম-বর্ণের মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিতের কথা বলা হয়েছে। ধর্ম অবমাননার জন্য সুনির্দিষ্ট আইন রয়েছে। এসব আইনের সঠিক প্রয়োগ করলে এ ধরনের অপরাধ এড়ানো সম্ভব। প্রয়োজনে সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিচার করার জন্য আলাদা ট্রাইব্যুনাল গঠনের দাবি জানান তারা। পাশাপাশি সংবিধানের অসাম্প্রদায়িক নীতি বাস্তবায়ন, সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন এবং নড়াইলের ঘটনায় যারা বিভিন্ন মণ্ডপ ও সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়েছে অতি দ্রুত বিচার বিভাগীয় তদন্ত করে দোষীদের দ্রুত শাস্তির আওতায় আনার জোড় দাবি জানান তারা।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি মুসলিম ধর্ম নিয়ে অবমাননা করে এক হিন্দু যুবক ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছে এমন অভিযোগকে কেন্দ্র করে নড়াইলের হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িতে হামলা, অগ্নিসংযোগ ও দোকান লুট-পাটের ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন।