এবার রাজশাহীতে বাটার বাটপারি

123
রাজধানীতে বাটার শোরুমে নতুন বলে রিজেক্ট জুতা ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠার দিনেই চট্টগ্রামেও বাটার প্রতারণার খবর ফলাও করে প্রচারিত হয় দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে। এবার রাজশাহীতে ধরা পড়লো বাটার বাটপারি।
রাজধানীতে বাটার শোরুমে নতুন বলে রিজেক্ট জুতা ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠার দিনেই চট্টগ্রামেও বাটার প্রতারণার খবর ফলাও করে প্রচারিত হয় দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে। এবার রাজশাহীতে ধরা পড়লো বাটার বাটপারি।

রাজধানী ঢাকা ও বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের পর এবার রাজশাহীতে ধরা পড়লো বাটার বাটপারি।

রাজধানীর মিরপুর ১০ নম্বর সেকশনে বাটার শোরুমে নতুন বলে রিজেক্ট জুতা ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠার দিনেই চট্টগ্রামেও বাটার প্রতারণার খবর ফলাও করে প্রচারিত হয় দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে।

১৮ এপ্রিল চট্টগ্রাম শহরের অভিজাত বিপণি বিতান সানমার ওশ্যান সিটিতে বাটার বাটপারি ধরা পড়ে। জুতার জগতে বিশ্বস্ত ও একদরের ব্র্যান্ড হিসেবে সুপরিচিত বাটার শোরুমে পাওয়া যায় দুইদর। এদিন ভোক্তা অধিদপ্তর অভিযান চালায় বাটার শোরুমে। এসময় দেখা যায়, ১৯৯৯ টাকার জুতার গায়ে ২২৯৯ টাকার স্টিকার লাগিয়ে সুকৌশলে ক্রেতাদের সঙ্গে প্রতারণা করা হচ্ছে। ঈদকে সামনে রেখে বাটার ক্রেতাদের সাথে প্রতারণার এমন কৌশল অবলম্বন করায় জাতীয় ভোক্তা অধিদপ্তর বাটাকে এক লাখ টাকা জরিমানাও করে।

কিন্তু তারপরও টনক নড়েনি বাটা কর্তৃপক্ষের। চট্টগ্রামের মতো একই কৌশলে রাজশাহীতেও ক্রেতাদের ঠকিয়ে আসছিল নিউমার্কেট এলাকার বাটা বিক্রয় কেন্দ্র।

রোববার, ২৪ এপ্রিল সকালে সেখানে অভিযান চালায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। অভিযানের সময় দেখা যায়, এক জোড়া স্যান্ডেলের গায়ে সাটানো স্টিকারে ১২৯৯ টাকা প্রাইস ট্যাগ লাগানো। কিন্তু স্টিকার তুলে ফেলতেই ধরা পড়ে যায় বাটার তেলেসমাতি কারবার। স্টিকারের নিচেই আরেকটি প্রাইস ট্যাগ বের হয়ে পড়ে। সেখানে স্যান্ডেলের আসল দাম লেখা ৯৯৯ টাকা। তার মানে ক্রেতাদের সঙ্গে প্রতারণা করে প্রতি জোড়া স্যান্ডেলে ৩০০ টাকা করে অতিরিক্ত আদায় করছিল বাটা।

এছাড়া আরেক জোড়া স্যান্ডেলে ৭৯৯ টাকার স্টিকারের ওপরে ৯৯৯ টাকার স্টিকার বসিয়ে অতিরিক্ত ২০০ টাকা আদায় করছিল রাজশাহী নিউমার্কেট এলাকার বাটা বিক্রয় কেন্দ্র।

মূল্য কারসাজির এমন ঘটনা ঘটিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে জরিমানাও গুণতে হয়েছে রাজশাহী নগরীর নিউমার্কেট এলাকার বাটা বিক্রয় কেন্দ্রকে। ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।
রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় শুনানি শেষে এই জরিমানা করেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হাসান আল মারুফ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হাসান আল মারুফ জানান, অভিযানে বাটার দুটি মডেলের স্যান্ডেলে মূল্য কারসাজির প্রমাণ পাওয়ার পর তা জব্দ করে অতিরিক্ত মূল্য নেওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করতে বলা হয় জড়িতদের। তাদের ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়েও তলব করা হয়। এরপর শুনানি হয়।

হাসান আল মারুফ আরও জানান, শুনানিতে বাটার প্রতিনিধি উপস্থিত হলেও সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি। এ কারণে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে জরিমানার অর্থ আদায় করে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা করা হয়েছে বলেও জানান ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের এই কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন :