একসাথে কাজ করবে হুয়াওয়ে-রেডডট ডিজিটাল

123

ক্লাউড সল্যুশনের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট খাতকে এগিয়ে নিয়ে যেতে রবির সম্পূর্ণ মালিকানাধীন আইসিটি সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান রেডডট ডিজিটাল লিমিটেডের সাথে এক সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করেছে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেড। এখন থেকে নির্দিষ্ট কিছু খাতে বিশেষভাবে কাজ করবে হুয়াওয়ে ও রেডডট ডিজিটাল।

এ বিষয়ে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের গুলশান কার্যালয়ে সম্প্রতি এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়; যেখানে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী প্যান জুংফেং এবং রেডডট ডিজিটালের প্রধান নির্বাহী হাসিব মুসতাবসির নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন। এ
সময় উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন অন্যান্য কর্মকর্তাগণও উপস্থিত ছিলেন।

এই চুক্তির অধীনে, বাংলাদেশের ক্লাউড ইকোসিস্টেমের বিকাশে এবং বিভিন্ন খাতে ব্যবসায়ের সম্ভাবনা উন্মোচনে একসাথে কাজ করবে হুয়াওয়ে ও রেডডট ডিজিটাল। পাশাপাশি, হুয়াওয়ের ক্লাউড পার্টনার হিসেবে কাজ করা ছাড়াও, হুয়াওয়ের ক্লাউড সল্যুশন নিয়ে রেডডট ডিজিটাল নিজেদের জন্যও এই সেবা ব্যবহার করবে।

অনুষ্ঠানে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী প্যান জুংফেং বলেন, “সকলের সহযোগিতায় মাত্র চার বছরের মধ্যেই হুয়াওয়ে ক্লাউড চীনে দ্বিতীয়, থাইল্যান্ডে তৃতীয় এবং এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের উন্নয়নশীল বাজারে চতুর্থ অবস্থান অর্জন করেছে। এটাই প্রমাণ করে যে হুয়াওয়ে ক্লাউড এই অঞ্চলে দ্রুত এর সেবার পরিধি বৃদ্ধি করছে । এন্টারপ্রাইজ, ব্যাংকিং, স্বাস্থ্য, শিক্ষাক্ষেত্রসহ বিভিন্ন খাতে ব্যাপ্ত পরিসরে সেবা প্রদানে আমাদের ক্লাউড সল্যুশন ও ইন্টেলিজেন্ট ক্লাউড নেটওয়ার্ক রয়েছে। আর আমি বেশ বিশ্বাসের সাথেই বলতে চাই যে গত ২৩ বছরের ধরে বাংলাদেশের আইসিটি খাতে হুয়াওয়ে যেভাবে কাজ করে আসছে তা অব্যাহত থাকবে এবং প্রতিনিয়ত ডিজিটালাইজেশনের সুবিধা নিশ্চিত করতে নিরলস কাজ করে যাবে এই প্রতিষ্ঠান।”

রেডডট ডিজিটালের প্রধান নির্বাহী হাসিব মুসতাবসির বলেন, “দেশের এন্টারপ্রাইজ খাতের ডিজিটাল রূপান্তরে হুয়াওয়ের সাথে একসাথে করতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। । প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা খরচ এবং সময় দারুণভাবে কমিয়ে আনার কারণে বিশ্বব্যাপী ক্লাউড সল্যুশন জনপ্রিয় হচ্ছে ক্লাউড। হুয়াওয়ের সাথে একসাথে দেশের দ্রুত বর্ধনশীল এন্টারপ্রাইজ খাতের পছন্দের ক্লাউড সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হওয়ার ব্যাপারে আমরা আত্মবিশ্বাসী। আমার বিশ্বাস, এই এমওইউ সরকারের স্মার্ট বাংলাদেশ লক্ষ্য অর্জনে সহায়তা করবে।”

উল্লেখ্য, ২২০ -এর বেশি ক্লাউড সার্ভিস, ২১০ -এর বেশি সল্যুশন এবং ৬ হাজারের বেশি পার্টনার অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে বিশ্বের ১৭০টি দেশ ও অঞ্চলে বিভিন্ন খাতের প্রতিষ্ঠানকে সেবা প্রদান করছে হুয়াওয়ে ক্লাউড।