উজবেকিস্তানে বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন

110

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিনী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেসা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী ৮ আগস্ট তারিখে তাসখন্দ, উজবেকিস্তানের বাংলাদেশ দূতাবাসে যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করা হয়েছে।

বঙ্গমাতার কর্মময় জীবনের উপর একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠানটি। অতঃপর বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেসা মুজিব, জাতির জনক শেখ মুজিবর রহমান এবং তার পরিবারের অন্যান্য শহীদ সদস্যদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

এ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বাংলাদেশের মাননীয় রাষ্ট্রপতি জনাব মোঃ আবদুল হামিদের বাণী পাঠ করেন এবং ডিসিএম নৃপেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে মরহুম বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেসা মুজিবের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। তিনি উল্লেখ করেন যে, বঙ্গমাতা সারা জীবন বঙ্গবন্ধুর জন্য উৎসাহ, শক্তি ও সাহসের মূল উৎস হিসেবে ছিলেন। তিনি ছিলেন বঙ্গবন্ধুর জীবনের প্রধান ঘটনাসমূহের প্রত্যক্ষ সাক্ষী । এছাড়াও আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় বঙ্গমাতার গরুত্বপূর্ণ ভুমিকা সম্পর্কে তিনি বিশদভাবে উল্লেখ করেন। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূতের সহধর্মিনী মিজ উম্মুল ফাতেমা ও কাউন্সেলর মোঃ নাজমুল আলম তাদের বক্তৃতায় বাংলাদেশের ইতিহাসে বঙ্গমাতার অপরিহার্য ভূমিকাকে বিশদভাবে তুলে ধরেন।

দূতবাসের কর্মকর্তা কর্মচারীগণ ও তাদের পরিবারের সদস্যরা এ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান শেষে সকলকে আপ্যায়নের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।