আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবো : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

100
আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবো : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী
আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবো : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আগামী ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী বিশ্ববাসীকে তাক লাগিয়ে দেবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করবো।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু সরকারের যে সফলতা, তা সত্যিই প্রশংসনীয়। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে দেশ আজ অন্যমাত্রায় উপনীত হতো। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে হত্যা করতে চেয়েছিল। সেই কলঙ্কিত অধ্যায় ও রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে দেশ অন্ধকার ও দুর্নীতির যুগে প্রবেশ করে। ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসীন হওয়ার পর পরই নেওয়া হয়েছে নানাবিধ উদ্যোগ।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী এও বলেন, বিলুপ্ত ও বেদখল হওয়া নদীগুলোকে পুনরুদ্ধার করে খননের মাধ্যমে প্রবাহমান করা এবং নৌপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নের কঠিন কাজে প্রধানমন্ত্রী নিজেই নেতৃত্ব দিচ্ছেন এবং হারিয়ে যাওয়া নৌপথ উদ্ধার ড্রেজার সংগ্রহের ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ সরকার এ পর্যন্ত ৪০টি ড্রেজার সংগ্রহ করেছে; আরো ৩৫টি ড্রেজার সংগ্রহের কাজ চলমান রয়েছে। নির্বাচনি মেনিফেস্ট অনুযায়ী ১০ হাজার কিলোমিটার নৌপথ খননের মধ্যে ৭ হাজার কিলোমিটার নৌপথ খনন হয়েছে; বাকি কাজ চলমান রয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী চাঁদপুরে শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে ‘নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহ-২০২২’ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

নৌপরিবহন অধিদফতরের মহাপরিচালক কমডোর এ জেড এম জালাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোস্তফা কামাল, জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, নৌযান মালিক মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম ও আব্দুর রব ভূইয়া, বাংলাদেশ কার্গো ভেসেল ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুরুল হক, বাংলাদেশ কোস্টাল শিপ ওনার্স এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান শেখ মাহফুজ হামিদ এবং নৌপরিবহন অধিদফতরের চিফ ইঞ্জিনিয়ার এন্ড শিপ সার্ভেয়ার মোঃ মনজুরুল কবীর।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, চাঁদপুরে আন্তর্জাতিকমানের নদীবন্দর স্থাপন করা হবে। তিনি বলেন, আমাদের বালু দরকার; তবে অপরিকল্পিতভাবে নয়। অবৈধ ও অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলনকারীরা যত শক্তিশালী হোক না তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন যথাযথ ব্যবস্থা নিবে। তিনি বলেন, চাঁদপুরে নৌপরিবহন অধিদফতরের অফিস খোলা হয়েছে। নৌযানের ফিটনেস ও নৌযান সংক্রান্ত কোন কাজের জন্য ঢাকায় যেতে হবে না। সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে যাবে।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, নদীর প্রবাহ বজায় রাখতে হবে। নতুবা নদীমাতৃক বাংলাদেশকে রক্ষা করা যাবে না। প্রশিক্ষিত নৌযান শ্রমিক তৈরিতে সরকার কাজ করছে। পাঁচটি মেরিন একাডেমি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। প্রতিটি বিভাগীয় শহরে মেরিন একাডেমি প্রতিষ্ঠা করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী নৌযান মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, যতদিন পর্যন্ত প্রশিক্ষিত জনবল ও নিরাপদ নৌযান প্রতিষ্ঠিত হবে না ততদিন পর্যন্ত নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহের স্লোগান থাকবে “প্রশিক্ষিত জনবল ও নিরাপদ জলযান, নৌ নিরাপত্তায় রাখবে অবদান।” অনুষ্ঠানে ‘আধুনিক যাত্রীবাহী নৌযান ডিজাইন’ এবং ‘অভ্যন্তরীণ নৌযান নাবিক প্রশিক্ষণ, পরীক্ষা গ্রহণ, সনদায়ন’ বিষয়ক দু’টি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনা করা হয়।