আবৃত্তি সংগঠন ‘কাব্যকলা’ পরিশীলিত মানুষ গঠনে কাজ করছে : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

168

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, আবৃত্তি সংগঠন ‘কাব্যকলা’ সুস্থ সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে শুদ্ধ ও পরিশীলিত মানুষ গঠনে কাজ করে যাচ্ছে। তরুণ প্রজন্মের কবি মুনা চৌধুরী প্রতিষ্ঠিত এ সংগঠনের রয়েছে এক ঝাঁক আবৃত্তি শিল্পী। দেশজ সংস্কৃতির বিকাশ ও তা বিশ্বদরবারে ছড়িয়ে দেয়া এ সংগঠনের মূল লক্ষ্য।

প্রতিমন্ত্রী রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে কবি মুনা চৌধুরীর ষষ্ঠ কাব্যগ্রন্থ ‘প্রেম তুই’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন এবং ‘কাব্যকলা’ আবৃত্তি সংগঠনের পরিবেশনায় ‘কাব্যকলা উৎসব ২০২২’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথি বলেন, মুনা চৌধুরী একাধারে কবি, আবৃত্তিশিল্পী, সংগঠক ও সমাজকর্মী। তিনি শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতির বিভিন্ন মাধ্যমে আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, মুনা চৌধুরীর কবিতা পাঠ করলেই বোঝা যায়- তিনি কবিতাকে কখনোই জটিলতার বন্ধনে আবদ্ধ করতে চাননি। তার কবিতার আরেকটি বিষয় হলো নিসর্গ। এই নিসর্গের মধ্যে থেকে তিনি নিজেই কবিতাকে ভাঙচুরের চেষ্টা করেছেন। নিসর্গ ও প্রেম নিয়ে কবি বেঁচে থাকুক যুগের পর যুগ, শতাব্দীর পর শতাব্দী। প্রতিমন্ত্রী এসময় কবি মুনা চৌধুরীর উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি ও সাফল্য কামনা করেন।

কবি মারুফুল ইসলামের সভাপতিত্বে উৎসব উদ্বোধন করেন দেশবরেণ্য আবৃত্তিশিল্পী রূপা চক্রবর্তী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন মঞ্চসারথি আতাউর রহমান, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা ও বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়।

সম্মানিত অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসৈনিক আশরাফুল আলম, কবি ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব রাজু আলীম, আবৃত্তিশিল্পী শিমুল মুস্তফা প্রমুখ।